• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • শিবের ভক্ত বিকাশ’কে বাঁচিয়েছেন মহাকালই, ছেলে গ্রেফতার হওয়ার পর বললেন মা

শিবের ভক্ত বিকাশ’কে বাঁচিয়েছেন মহাকালই, ছেলে গ্রেফতার হওয়ার পর বললেন মা

দুবের গোটা গ্যাংই ছিল মহাদেবের ভক্ত । প্রতি বছর তারা শিবের মন্দিরে পুজো দিতে উজ্জয়নীর মহাকাল মন্দিরে আসত ।

দুবের গোটা গ্যাংই ছিল মহাদেবের ভক্ত । প্রতি বছর তারা শিবের মন্দিরে পুজো দিতে উজ্জয়নীর মহাকাল মন্দিরে আসত ।

দুবের গোটা গ্যাংই ছিল মহাদেবের ভক্ত । প্রতি বছর তারা শিবের মন্দিরে পুজো দিতে উজ্জয়নীর মহাকাল মন্দিরে আসত ।

  • Share this:

    #কানপুর: ৮ পুলিশকর্মী’কে খুন করে পালিয়ে বেড়ানো উত্তরপ্রদেশের ডন বিকাশ দুবে গ্রেফতার হওয়ার পর মুখ খুললেন তার মা সরলা দেবী । সংবাদ মাধ্যমের সামনে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘উজ্জয়নী’তে বিকাশের শ্বশুরবাড়ি । আমার ছেলে মহাদেবের ভক্ত । প্রতি বছর শ্রাবণ মাসে মহাকাল মন্দিরে পুজো দেয় সে ।’’ স্বয়ং মহাকালই তাঁকে রক্ষা করেছে বলেও জানান তিনি ।

    এর আগে পুলিশ বিকাশের মাথার দাম ধার্য্য করার পর সেই সংবাদ তিনি টিভি-তে দেখেছিলেন । তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, তিনি কী চান? সরলা দেবী বলেন, তিনি চান পুলিশ তাঁকে দেখলেই গুলি করে দিক । তার সঙ্গে এও বলেন, সরকার যা ঠিক বলে মনে করবে তাই যেন করে ।

    কানপুরে ৮ পুলিশকর্মী খুনের পর থেকে নিজের কয়েকজন বিশ্বস্ত অনুগামীর সঙ্গে সেখান থেকে পালিয়েছিল বিকাশ । এরপর পরিচয় গোপন রাখতে একেকজন একেক দিকে ছড়িয়ে পড়ে । কিন্তু বিকাশ ছাড়া প্রায় সকলেই পুলিশি এনকাউন্টারে মারা যায় । জানা গিয়েছে, পুলিশের গুলিতে মরতে ভয় পেয়েছিল বিকাশ । সম্ভবত এরপরেই আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত নেয় সে । তবে সত্যিই বিকাশ ধরা দিয়েছে নাকি তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন ।

    দুবের গোটা গ্যাংই ছিল মহাদেবের ভক্ত । প্রতি বছর তারা শিবের মন্দিরে পুজো দিতে উজ্জয়নীতে আসত । এ দিনও একটি ব্যাগ নিয়ে মন্দিরে প্রবেশ করে বিকাশ । টিকিট কাউন্টারে ২৫০ টাকার টিকিট কাটে সে । মন্দিরের বাইরে এক ফুল বিক্রেতার থেকে ফুল কেনার সময় মাস্ক খোলে বিকাশ । তখনই সন্দেহ হওয়ায় পুলিশে খবর দেন ওই ফুল বিক্রেতা । এ ছাড়া তার হাবভাব সন্দেহজনক লেগেছিল মন্দির কর্তৃপক্ষেরও । তাকে মাস্ক খুলতে বলা হয় । সে সময়ও অনেকের নজরে পড়ে যায় বিকাশ । তাঁরাই খবর দেয় পুলিশকে ।

    Published by:Simli Raha
    First published: