যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করলেই দিল্লির দূষণ কমবে, বললেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী

ধোঁয়ায় ঢেকেছে রাজধানীর আকাশ৷ দিল্লির বাতাসে বিষ৷ শ্বাস কষ্ট হচ্ছে দিল্লিবাসীর৷ চোখ জ্বলছে৷ প্রতিটি শ্বাসে মারণ গ্যাস ভরছে ফুসফুসে৷ এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ৯৯৯ মার্ক ছুঁয়েছে৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 03, 2019 04:01 PM IST
যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করলেই দিল্লির দূষণ কমবে, বললেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী
উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সুনীল ভারালা
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Nov 03, 2019 04:01 PM IST

#লখনৌ: ধোঁয়ায় ঢেকেছে রাজধানীর আকাশ৷ দিল্লির বাতাসে বিষ৷ শ্বাস কষ্ট হচ্ছে দিল্লিবাসীর৷ চোখ জ্বলছে৷ প্রতিটি শ্বাসে মারণ গ্যাস ভরছে ফুসফুসে৷ এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ৯৯৯ মার্ক ছুঁয়েছে৷ যার নির্যাস, প্রাণ সংশয়ও হতে পারে৷ এ হেন পরিস্থিতিতে উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী চটজলদি সমাধান বাতলে দিলেন৷ তাঁর দাবি, দিল্লিকে নাকি এই দূষণ থেকে বাঁচাতে পারেন একমাত্র ভগবান ইন্দ্র৷ দরকার বিশেষ যজ্ঞ৷

বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশের এই মন্ত্রীর নাম সুনীল ভারালা৷ পরিবেশবিদ থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞরা যখন দিল্লির দূষণ কমানোর নানা উপায় ভাবছেন, তখন সুনীল ভারালার দৃঢ় বিশ্বাস ভগবান ইন্দ্রের বিশেষ যজ্ঞ করলেই কমে যাবে দিল্লির দূষণ৷

Loading...

হরিয়ানা, পঞ্জাবে দেদার ফসল পোড়ানোর জেরে প্রতিবছরই ধোঁয়ায় ঢেকে যাচ্ছে দিল্লি৷ এর সঙ্গে দিল্লি ও রাজধানী সংলগ্ন এলাকার নিজস্ব দূষণ তো রয়েইছে৷ ভারালার বক্তব্য, ফসল পোড়ানো স্বাভাবিক বিষয়৷ এর সঙ্গে দূষণের মাত্রা বৃদ্ধির কোনও সম্পর্ক নেই৷ তাঁর কথায়, 'চাষিরা বরাবরই বাড়তি ফসল পোড়ান৷ এটা নতুন কিছু নয়৷ প্রতি বছর তাঁদের সমালোচনা করাটা দুর্ভাগ্যজনক৷' এরপরই উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর বক্তব্য, 'সরকারের উচিত অবিলম্বে যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করা৷ উনি বৃষ্টির ভগবান৷ ভগবান ইন্দ্র সন্তুষ্ট হলে সব ঠিক হয়ে যাবে৷'

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কয়েক দিন পঞ্জাবে ২২ হাজার ও হরিয়ানায় ৪ হাজার ২০০টি ফসল পোড়ানোর ঘটনা সামনে এসেছে৷ মন্ত্রীর দাবি, চাষিরা আখ বা ডাল চাষ করেন৷ তাতে এই ধরনের ফসল আবর্জনা হওয়াই স্বাভাবিক৷

First published: 04:01:19 PM Nov 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर