যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করলেই দিল্লির দূষণ কমবে, বললেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী

যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করলেই দিল্লির দূষণ কমবে, বললেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী
উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সুনীল ভারালা

ধোঁয়ায় ঢেকেছে রাজধানীর আকাশ৷ দিল্লির বাতাসে বিষ৷ শ্বাস কষ্ট হচ্ছে দিল্লিবাসীর৷ চোখ জ্বলছে৷ প্রতিটি শ্বাসে মারণ গ্যাস ভরছে ফুসফুসে৷ এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ৯৯৯ মার্ক ছুঁয়েছে৷

  • Share this:

#লখনৌ: ধোঁয়ায় ঢেকেছে রাজধানীর আকাশ৷ দিল্লির বাতাসে বিষ৷ শ্বাস কষ্ট হচ্ছে দিল্লিবাসীর৷ চোখ জ্বলছে৷ প্রতিটি শ্বাসে মারণ গ্যাস ভরছে ফুসফুসে৷ এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ৯৯৯ মার্ক ছুঁয়েছে৷ যার নির্যাস, প্রাণ সংশয়ও হতে পারে৷ এ হেন পরিস্থিতিতে উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী চটজলদি সমাধান বাতলে দিলেন৷ তাঁর দাবি, দিল্লিকে নাকি এই দূষণ থেকে বাঁচাতে পারেন একমাত্র ভগবান ইন্দ্র৷ দরকার বিশেষ যজ্ঞ৷

বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশের এই মন্ত্রীর নাম সুনীল ভারালা৷ পরিবেশবিদ থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞরা যখন দিল্লির দূষণ কমানোর নানা উপায় ভাবছেন, তখন সুনীল ভারালার দৃঢ় বিশ্বাস ভগবান ইন্দ্রের বিশেষ যজ্ঞ করলেই কমে যাবে দিল্লির দূষণ৷

হরিয়ানা, পঞ্জাবে দেদার ফসল পোড়ানোর জেরে প্রতিবছরই ধোঁয়ায় ঢেকে যাচ্ছে দিল্লি৷ এর সঙ্গে দিল্লি ও রাজধানী সংলগ্ন এলাকার নিজস্ব দূষণ তো রয়েইছে৷ ভারালার বক্তব্য, ফসল পোড়ানো স্বাভাবিক বিষয়৷ এর সঙ্গে দূষণের মাত্রা বৃদ্ধির কোনও সম্পর্ক নেই৷ তাঁর কথায়, 'চাষিরা বরাবরই বাড়তি ফসল পোড়ান৷ এটা নতুন কিছু নয়৷ প্রতি বছর তাঁদের সমালোচনা করাটা দুর্ভাগ্যজনক৷' এরপরই উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর বক্তব্য, 'সরকারের উচিত অবিলম্বে যজ্ঞ করে ভগবান ইন্দ্রকে খুশি করা৷ উনি বৃষ্টির ভগবান৷ ভগবান ইন্দ্র সন্তুষ্ট হলে সব ঠিক হয়ে যাবে৷'

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কয়েক দিন পঞ্জাবে ২২ হাজার ও হরিয়ানায় ৪ হাজার ২০০টি ফসল পোড়ানোর ঘটনা সামনে এসেছে৷ মন্ত্রীর দাবি, চাষিরা আখ বা ডাল চাষ করেন৷ তাতে এই ধরনের ফসল আবর্জনা হওয়াই স্বাভাবিক৷

First published: November 3, 2019, 4:01 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर