দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিল্লি এখন 'বাবা কা ধাবা'য় খাবারের লাইনে ! ৮০ বছরের বৃদ্ধ দোকানদারের পাশে গোটা দেশ !

দিল্লি এখন 'বাবা কা ধাবা'য় খাবারের লাইনে ! ৮০ বছরের বৃদ্ধ দোকানদারের পাশে গোটা দেশ !
photo ANI

অনেক দিন দোকান বন্ধ রেখে না খেতে পেয়ে দিন কাটাচ্ছিলেন তাঁরা। আনলক পর্যায়ে তাঁরা দোকান তো খোলেন, কিন্তু তাতে দেখা নেই একজনেরও।সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও ভাইরাল হতেই পাশে দাঁড়াল গোটা দেশ।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: করোনায় কত মানুষ যে কাজ হারিয়ে বিপদে পড়েছেন, তার হিসেব নেই। বহু দোকান-পাট বন্ধ হয়ে গিয়েছে। দীর্ঘদিন লকডাউন চলায়, রাস্তা ঘাট, অফিস, স্কুল সবই বন্ধ। ফলে দেখা নেই মানুষের। আর এই সময় জীবন মরণ সমস্যায় পড়েন দিল্লির ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধ ও তাঁর স্ত্রী।

দিল্লিতে একটি ধাবা আছে তাঁর। রাস্তার ধারে ছোট্ট দোকান। এখানে পাওয়া যায় ভাত, তরকা ডাল, চিকেন, হাতে তৈরি রুটি। ছোট্ট ঘুমটি দোকান। খাবার বানান ওই দম্পতী নিজেরাই। ঠিক যেমন কলকাতার ঝুপরির খাবারের দোকানগুলো হয় অনেকটা তেমনই। কিন্তু দীর্ঘ লকডাউনে একেবারে বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়। অনেক দিন দোকান বন্ধ রেখে না খেতে পেয়ে দিন কাটাচ্ছিলেন তাঁরা। আনলক পর্যায়ে তাঁরা দোকান তো খোলেন, কিন্তু তাতে দেখা নেই একজনেরও।

দু'দিন আগে দিল্লির এক ব্যক্তি ওই দোকানে খাবার কিনতে চান। গিয়ে দেখেন সব খাবার রেডি। সারাদিনে বিক্রি হয়েছে মাত্র ৪০ টাকার। কেঁদে ফেলেন ওই বৃদ্ধা। এর পর ওই ব্যক্তি গোটা ঘটনার ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধকে পেট চালানোর জন্য কাঁদতে দেখে, গোটা ভারতের চোখে জল আসে।

হুহু করে শেয়ার হতে থাকে ভিডিও। সারা দেশের মানুষ তাঁর পাশে থাকতে চেয়ে এগিয়ে আসেন। ধাবার নাম 'বাবা কা ধাবা'। ১৯৯০ সাল থেকে দোকান চালান ৮০ বছরের কান্তা প্রসাদ। এখন তাঁর দোকানের সামনে লম্বা লাইন। সকলেই সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছেন। খাবার বানিয়ে শেষ করতে পারছেন না দম্পতী।

এই খবর শেয়ার করেছেন বলি অভিনেত্রী রবিনা ট্যান্ডনও। মানুষকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসতে বলেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ার সব কিছু খারাপ নয়। ভালো কাজও হয়। দু'দিন আগেই সংসার চলছে না বলে  হাউ হাউ করে কাঁদছিলেন কান্তা প্রসাদ। রবিনা ট্যান্ডন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, 'দিল্লিবালো যাও আর খেয়ে এস প্লিস।" এই পোস্ট এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়া ভিডিও দেখে মানুষের লম্বা লাইন লেগে গিয়েছে 'বাবা কা ধাবা'র সামনে। গোটা দিল্লির মানুষ এগিয়ে এসেছেন। সকলেই ধন্যবাদ জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়াকে। না হলে আজ মানুষ জানতেই পারতেন না। করোনা অনেক কিছু শিখিয়েছে আমাদের। তবে মানুষের মানবিকতার জয় কিন্তু সবার আগে।

Published by: Piya Banerjee
First published: October 8, 2020, 6:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर