উত্তরপ্রদেশে বিজেপি বিরোধী মহাজোট ! শনিবারই অখিলেশ-মায়াবতীর যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে জোটের ঘোষণা

News18 Bangla
Updated:Jan 12, 2019 08:56 AM IST
উত্তরপ্রদেশে বিজেপি বিরোধী মহাজোট ! শনিবারই অখিলেশ-মায়াবতীর যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে জোটের ঘোষণা
File Photo
News18 Bangla
Updated:Jan 12, 2019 08:56 AM IST

#লখনউ: ২৫ বছর আগে এসপির মুলায়ম সিং যাদব এবং বিএসপির কাঁশী রাম জোট বেঁধে লড়ে সাফল‍্য পেয়েছিলেন ৷ এবার ফের কি সেই সমীকরণ দেখবে উত্তরপ্রদেশ ? ফের কি সাইকেলের সাথী হবে হাতি ? শনিবার লখনউয়ে যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করার কথা এসপির অখিলেশ যাদব এবং বিএসপির মায়াবতীর ৷ সেখানেই হতে পারে জোট ঘোষণা ৷

শনিবার লখনউ-র গোমতি নগরে তাজ হোটেলে দুপুর ১২টায় বৈঠক করবেন অখিলেশ-মায়াবতী ৷ অনেকেই বলেন, দিল্লির মসনদের পথ যায় উত্তরপ্রদেশ হয়ে ৷ ২০১৪ সালে সেই উত্তরপ্রদেশ দেখেছিল মোদি সুনামি ৷ ৮০টি লোকসভা আসনের মধ‍্যে ৭৩টিতেই জিতেছিল এনডিএ ৷ কিন্তু, এ বার কী হবে ? পর্যবেক্ষকরা বলছে, গত কয়েকটি ভোটের ফলেই স্পষ্ট, মোদি ম‍্যাজিক এখন ফিকে ৷

আরও পড়ুন: তৃণমূলের ব্রিগেডে উপস্থিত থাকবেন চন্দ্রবাবু নাইডু, কেজরিওয়াল-সহ কেন্দ্রীয় স্থরের একাধিক শীর্ষ নেতা

এই পরিস্থিতিতে, পদ্মকে আটকাতে এবার কি সাইকেলের সাথী হবে হাতি ? বিজেপির বিরুদ্ধে জোট বেঁধে লড়বে সমাজবাদী পার্টি ও বহুজন সমাজ পার্টি ? এসপির অখিলেশ এবং বিএসপির মায়াবতীর, শনিবার লখনউয়ে যৌথভাবে সাংবাদিক বৈঠক করার কথা ৷ জোর জল্পনা, এই সাংবাদিক বৈঠকেই বিজেপি বিরোধী জোটের কথা ঘোষণা হতে চলেছে ৷ তার আগে শুক্রবার, মোদি সরকারকে নিশানা করে সুর বেঁধে দেন অখিলেশ যাদব ৷

শোনা যাচ্ছে, এসপি, বিএসপি, দুই দলই ৩৭টি করে আসনে প্রার্থী দেবে বলে রফা হয়েছে ৷ তিনটি আসন ছাড়া হয়েছে অজিত সিংয়ের রাষ্ট্রীয় লোক দলকে ৷ তাহলে বাকি ৩টে আসনে কি লড়বে কংগ্রেস ?

রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা, সনিয়া গান্ধির কেন্দ্র রায়বরেলি, রাহুলের অমেঠির পাশাপাশি আরও একটি আসনে প্রার্থী নাও দিতে পারে এসপি-বিএসপি ৷ অথাৎ ঘুরিয়ে কংগ্রেসকে আসনগুলি ছেড়ে দেওয়া হবে ৷ কিন্তু, এত অল্প আসন কি কংগ্রেস কখনও মেনে নেবে ? তা হলে কি মহাজোটে কংগ্রেস থাকবে না ? কংগ্রেস অবশ‍্য জোর গলায় বলছে, বিজেপির বিরুদ্ধে মহাজোট হবেই৷

Loading...

সাম্প্রতিককালে বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশের, ফুলপুর, গোরক্ষপুর, কৈরানার মতো লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে এসপি-বিএসপি জোট বেঁধে লড়ায় ধরাশায়ী হতে হয়েছে বিজেপিকে ৷ এবার ১৯-র মেগা ফাইনালে যদি ফের এই দুই দল জোট বাঁধে তা হলে বিজেপি অন্তত ২৫-৩০টি আসন খোয়াতে পারে বলে গেরুয়া শিবিরেই আশঙ্কা ৷ যদিও প্রকাশ‍্যে তারা সে কথা মানছেন না ৷

অন্যদিকে, নরেন্দ্র মোদি অবশ‍্য বসে নেই। বৃহস্পতিবার তিনি তামিলনাড়ু গিয়ে জোট বার্তা দেন ৷ বলেন, নতুন দলের জন‍্য দরজা খোলা ৷ এটা কি নাম না করে ডিএমকে কে বার্তা? তৈরি হয় জল্পনা। অটল বিহারী বাজপেয়ীর আমলে এনডিএর সংসারে ছিল ডিএমকে। কিন্তু, নরেন্দ্র মোদির আমলে তা যে আর সম্ভব নয় সেটা এ দিন স্পষ্ট করে দিয়েছেন ডিএমকে সভাপতি এম কে স্ট্যালিন।

First published: 08:56:23 AM Jan 12, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर