corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউন ভাঙলে আর ফেক নিউজ ছড়ালে দু’‌বছরের জেল!‌ কড়া নির্দেশ কেন্দ্রের

লকডাউন ভাঙলে আর ফেক নিউজ ছড়ালে দু’‌বছরের জেল!‌ কড়া নির্দেশ কেন্দ্রের
সরকার এখন নিশ্চিত করতে চাইছে, যেভাবেই হোক লকডাউনের শর্ত শিথিল হলেও সামাজিক দূরত্ব যেন যতটা বজায় রাখা যায়৷ PHOTO- FILE

২০০৫ বিপর্যয় মোকাবিলা আইনের ৫১ ও ৬০ নম্বর ধারায় এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ নম্বর ধারায় এই আইনি প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবে যে কোনও প্রশাসন

  • Share this:

#‌নয়া দিল্লি:‌ লকডাউন ভাঙলে আর ফেক নিউজ ছড়ালে হতে পারে দু’‌বছরের জেল। সেই সঙ্গে হতে পারে জরিমানা। এই শাস্তি যাতে কার্যকর হয় এবং এই বিষয়ে যাতে সমস্ত রাজ্য প্রশাসন সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করে, তার জন্য নির্দেশিকা পাঠাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যাঁরা লকডাউনের সময় আইন ভঙ্গ করবেন বা ভুল তথ্য সরবরাহ করবেন তাঁদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ও বিপর্যয় মোকাবিলা আইন ২০০৫–এ প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। সমস্ত মুখ্যসচিবের লেখা চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিব আল্লা অজয় লিখেছেন, ‘‌২৪ মার্চ থেকে দেশে লকডাউন চলছে। লকডাউন কী, সেটিও একটি চিঠিতে লেখাও হয়েছে। এরপরেও যাঁরা এই ঘোষিত লকডাউনেরর বিরোধিতা করছেন তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে সরকার।

লকডাউন ভাঙলে আর ফেক নিউজ ছড়ালে যে কারওর হতে পারে দু'বছরের জেল। সেই সঙ্গে হতে পারে জরিমানাও। আর এই শাস্তি যাতে কার্যকর হয় এবং এই বিষয়ে যাতে সমস্ত রাজ্য প্রশাসন সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করে তার জন্য নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিব বৃহস্পতিবার সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে জানিয়েছেন, যাঁরা লকডাউনের সময় আইন ভঙ্গ করবেন বা ভুল তথ্য সরবরাহ করবেন তাঁদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ও বিপর্যয় মোকাবিলা আইন ২০০৫–এ প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। সমস্ত মুখ্যসচিবকে লেখা চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিব অজয় ভাল্লা লিখেছেন, যারা এই লকডাউন ভঙ্গ করবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া ‌হবে। ২০০৫ বিপর্যয় মোকাবিলা আইনের ৫১ ও ৬০ নম্বর ধারায় এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ নম্বর ধারায় এই আইনি প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবে যে কোনও প্রশাসন। এই বিষয়ে সাধারণ মানুষকে যথেষ্ট ওয়াকিবহাল করতে এই দুটি আইন নিয়ে ব্যাপকভাবে প্রচার চালাতে হবে। পুলিশের কাছেও এই বিষয়ে যথেষ্ট তথ্য পৌঁছে দিতে হবে। এই আইনে বলা আছে যদি কেউ এই সময় সুশাসন বজায় রাখার পথে পুলিশ বা অন্যান্য প্রশাসনিক কাজ কাজকর্মে বাধা সৃষ্টি করে তাহলে তাদের দু’‌বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে এছাড়া ফেক নিউজ ছড়ানোর জন্যও দু’‌বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। ত্রাণ ও সাহায্যের অর্থ যদি কেউ নয়ছয় করে তাহলে তাদের দুবছরের জেল ও বেশ কিছু আর্থিক জরিমানা করা হতে পারে।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: April 3, 2020, 10:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर