দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুরোপুরি লকডাউন নাকি আনলক ২? সিদ্ধান্ত নিয়ে নিল বাংলা-সহ এই রাজ্যগুলি

পুরোপুরি লকডাউন নাকি আনলক ২? সিদ্ধান্ত নিয়ে নিল বাংলা-সহ এই রাজ্যগুলি
লকডাউন না আনলক ২, কোন পথে হাঁটছে রাজ্যগুলি

প্রশ্ন উঠছে লকডাউনই চালিয়ে নিয়ে যাবে রাজ্যগুলি নাকি আনলক ২ কার্যকর হবে?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: প্রতিনিয়ত বেড়েই চড়েছে দেশে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ১৯ হাজার ৯০৬ জন। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লক্ষ ২৮ হাজার ৮৫৯। এই অবস্থায় একদিকে যেমন সংক্রমণ রোধ করতে হবে, তেমনই অর্থনীতির চাকা সচল না হলে বহু মানুষ আরও বেকায়দায় পড়বেন। এই উভয়সঙ্কটই ভাবাচ্ছে রাজ্য প্রশাসনগুলিকে। প্রশ্ন উঠছে লকডাউনই চালিয়ে নিয়ে যাবে রাজ্যগুলি নাকি আনলক ২ কার্যকর হবে?

ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ডের মতো রাজ্যগুলি সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে ৩১ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন নির্দেশিকাই পালন করবে তারা। অন্য দিকে তামিলনাড়ু চাইছে শুধু মাত্র ব্যাপক ভাবে সংক্রমিত এলাকা (কনটেইনমেন্ট জোন)গুলিতে লকডাউন চালিয়ে নিয়ে যেতে।

ঝা়ড়খণ্ড: পঞ্চম দফার লকডাউন পর্ব শেষ হবে ৩০ জুন। তার আগে শুক্রবার ঝাড়খণ্ড প্রশাসনের শীর্ষকর্তারা উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে বসেন। কোভিড একজিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান তথা চিফ সেক্রেটারি সুখদেব সিংহ পরে নির্দেশিকা জারি করে জানান, সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তের মধ্যে লকডাউন পালিত হবে পুরনো নির্দেশিকা মেনেই।

পশ্চিমবঙ্গ: পশ্চিমবঙ্গেও লকডাউন চলবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন এই পর্বে নাইট কার্ফু আরও এক ঘণ্টা কমানো হবে। অর্থাৎ রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টার পরিবর্তে কার্ফু জারি থাকবে রাত ১০ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন সমস্ত সতর্কতাবিধি মেনে মেট্রোও চালানো হতে পারে ১ জুলাই থেকে।

দিল্লি: পূর্ণমাত্রায় লকডাউন চালিয়ে নিয়ে যেতে চান না অরবিন্দ কেজরিওয়াল। যদিও ৩১ জুলাই পর্যন্ত স্কুল বন্ধই থাকবে। ছাত্রছাত্রীদের পঠনপাঠন চলবে অনলাইন পদ্ধতিতে।

অসম: শুক্রবার অসম প্রশাসন জানিয়েছে করোনা আবহে ১৪ দিনের সম্পূর্ণ লকডাউন চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে কামরূপ জেলায়।চলবে নাইটকার্ফুও। গুয়াহাটি কামরূপের আওতাধীন হওয়ায় সেখানে লকডাউন করা করার পথেই হাঁটছে প্রশাসন।

তেলঙ্গনা: রবিবার থেকেই তেলঙ্গনার হায়দরাবাদ বেগম মার্কেটের দরজা বন্ধ রাখা হচ্ছে। করোনা রোগীর সংখ্যা রাতারাতি বাড়তে থাকায় শহরের ব্যবসায়ী সংংস্থাগুলি বৈঠক করে আগামী আটদিন দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তামিলনাড়ু: এই রাজ্যের চেন্নাই, কাঞ্চিপুরম, থিরুভাল্লুর, চেঙ্গাপেট, মাদুরাই অঞ্চলে ১৯ জুন থেকেই লকডাউন চলছে। এখনও পর্যন্ত শুধু চেন্নাইতেই ৭০০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কর্ণাটক: সম্প্রতি করোনা প্রতিরোধে এক সর্বদলীয় বৈঠক আয়োজিত হয় কর্ণাটকে। মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পার নেতৃত্বে এই বৈঠকে স্থির হয় বেঙ্গালুরু সহ অনান্য জায়গা সচল করে দেওয়া হবে। ৫ জুলাইয়ের পর থেকে শুধু রবিবার দিন লকডাউন পালিত হবে।

Published by: Arka Deb
First published: June 28, 2020, 4:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर