Home /News /national /
রাম রহিমের কুকীর্তি চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন নির্যাতিতা সাধ্বী, কী লেখা ছিল সেই চিঠিতে পড়ুন...

রাম রহিমের কুকীর্তি চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন নির্যাতিতা সাধ্বী, কী লেখা ছিল সেই চিঠিতে পড়ুন...

রাম রহিমের কুকীর্তি চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন নির্যাতিতা সাধ্বী, কী লেখা ছিল সেই চিঠিতে পড়ুন...

  • Share this:

    #চণ্ডীগড়: ডেরা প্রধান গুরমিত রাম রহিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ। প্রধানমন্ত্রীর দফতরে চিঠি দিয়েছিলেন গুরু রাম রহিমের আশ্রমের দুই সাধ্বী। সেই চিঠি ছাপানোর সাহস দেখিয়েছিলেন স্থানীয় এক সংবাদপত্রের সম্পাদক। তাঁর ৫ মাস পরেই খুন হতে হয় তাঁকে। গত ১৫ বছর ধরে সুবিচার পেতে লড়ছে সেই সম্পাদকের পরিবার। ডিসেম্বরে শুরু সেই খুনের মামলার চূড়ান্ত শুনানি।

    একটি বেনামী চিঠি। নিজের সংবাদপত্র পুরা সচ'এ সেটাই ছাপিয়েছিলেন সম্পাদক রামচন্দ্র ছত্রপতি। সেই চিঠির জেরেই ১৫ বছর পর দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন স্বঘোষিত গডম্যান গুরমিত রাম রহিম। চিঠি ছাপানোর কয়েক মাসের মধ্যেই অবশ্য খুন করা হয় রামচন্দ্রকে। রাম রহিমের নির্দেশেই এই খুন বলে অভিযোগ। রামচন্দ্রের হয়ে গত ১৫ বছর ধরে তাঁর হয়ে লড়াই চালাচ্ছে পরিবার। CNN-News18 কে এক্সক্লুসিভ সেই লড়াইয়ের কথা জানালেন রামচন্দ্রের ছেলে।

    কি ছিল সেই চিঠিতে? ডেরার আশ্রমে কিভাবে বাবার নির্যাতনের শিকার হন সেবিকারা, চিঠিতে সেই অভিজ্ঞতাই জানিয়েছিলেন এক নির্যাতিতা। তিনি চিঠিতে লেখেন,

    আমাকে রাতে নিজের ঘরে ডেকে পাঠিয়েছিলেন রাম রহিম। তখন উনি পর্নোগ্রাফি দেখছিলেন। উনি হুমকি দেন, শারীরিক সম্পর্ক না করলে চরম ক্ষতি করা হবে। আমার পরিবার ওনার ভক্ত। সরকারি মহলেও প্রচুর ক্ষমতা। কেউ আমার কথা বিশ্বাস করবে না। সেই রাতে রাম রহিম আমাকে ধর্ষণ করেন। এরপর মাঝেমধ্যেই ডেকে পাঠিয়ে ধর্ষণ করতেন। শুধু আমি নয়, আশ্রমের সব মহিলাকেও একইভাবে ধর্ষণ করতেন রাম রহিম। ভয়ে, লজ্জায় কেউ কিছু বলতে পারেনি।

    চিঠি প্রকাশের পরই তোলপাড় শুরু হয় গোটা দেশে। তৎপর হয় প্রধানমন্ত্রীর দফতর। স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয় পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট। বাবার স্বরূপ প্রকাশ্যে চলে আসে।

    আরও পড়ুন

    ডেরায় হতে থাকা ধর্ষণের ঘটনা প্রথম প্রকাশ্যে আনেন এই ব্যক্তি

    খবরের কাগজের চিঠির সঙ্গে মূল চিঠির বয়ান মিলিয়ে দেখা হয় ডেরার আশ্রমে ১৮ জন সেবিকাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই ১৬ জন মুখ না খুললেও দুজনের বয়ানের সঙ্গে মিলে যায় চিঠির বয়ান রাম রহিমের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রমাণের ফাইলও রেখে গিয়েছিলেন রামচন্দ্র ৷ তাও তদন্তের কাজে সিবিআইকে সাহায্য করেছে ৷
    রামচন্দ্রকে খুনের অভিযোগে মামলা হয়েছে গুরু রাম রহিম সহ আরও ১২ জনের বিরুদ্ধে। বাবার খুনীদের শাস্তির জন্য সেদিকেও তাকিয়ে রামচন্দ্রের পরিবার।

    First published:

    Tags: Baba Gurmeet Ram Rahim, Baba Ram Rahim, Bengali News, Dera Sacha Sauda, Dera Sacha Sauda head Gurmeet Ram Rahim Singh, Gurmeet Ram Rahim, Ram Chander Chhatrapat, Ram rahim, Ram Rahim Rape Case Verdict, Sant Gurmeet Ram Rahim

    পরবর্তী খবর