Home /News /national /
Tiger Attack Case: জঙ্গল থেকে হাজতে! যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বাঘিনীর, ভয়ঙ্কর অপরাধ প্রমাণিত

Tiger Attack Case: জঙ্গল থেকে হাজতে! যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বাঘিনীর, ভয়ঙ্কর অপরাধ প্রমাণিত

Tiger Attack Case: বাঘের যাবত্জীবন কারাদণ্ড! আজব কাণ্ড।

  • Share this:

    #লখিমপুর: উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে বন বিভাগ জানাচ্ছে, গত দুবছরে ২১ জনকে 'শিকার' করেছে সে। তবে শেষ পর্যন্ত তাকে খাঁচায় বন্দী করেছিল বন বিভাগ।

    দীর্ঘ তদন্তের পর অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। অভিযুক্ত একটি মানুষখেকো বাঘ। বন বিভাগ দোষী বাঘটিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে।

    লখিমপুর খেরির টিকুনিয়া এলাকার ঘটনা। সেখানে গত ২ বছরে ২১ জনকে শিকারে পরিণত করেছিল সেই বাঘিনী। এর পর বন বিভাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি বাঘ ও আরেকটি বাঘিনীকে খাঁচায় বন্দী করে।

    আরও পড়ুন- ফের স্পাইসজেটে গোলযোগ! চিনে না গিয়ে কলকাতায় ফিরে এল স্পাইসজেট কার্গো বিমান!

    দুজনকেই পরীক্ষা করে দেখা যায়, সেই বাঘিনীর সামনের দুটি কানাইন ভেঙে গিয়েছে এবং বাকি দাঁতগুলোও জীর্ণ। বাঘিনীর বয়স প্রায় ৯ বছর বলে জানা যায়। ক্যামেরা ট্র্যাপ দেখে জানা যায়, বাঘটি লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে হত্যা করছিল।

    একই এলাকা থেকে ধরা পড়া বাঘটির বয়স প্রায় ৫ বছর এবং সেটি সম্পূর্ণ সুস্থ ছিল। তবে সেটি মানুষকে আক্রমণ করছিল না। তাই বাঘটি নির্দোষ প্রমাণিত হয়। তবে দোষী বাঘিনীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করে বন বিভাগ।

    বাঘিনীকে লখনউয়ের নবাব ওয়াজিদ আলি শাহ চিড়িয়াখানায় পাঠানো হয়েছে। বাঘটির গলায় কলার আইডি লাগিয়ে দুধওয়া টাইগার রিজার্ভের কোর জোন এলাকায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

    দুধওয়া টাইগার রিজার্ভের ফিল্ড ডিরেক্টর সঞ্জয় পাঠক বলেছেন, ওই এলাকায় বন্য প্রাণীর আক্রমণের খবর পাওয়ার পর থেকেই একটি দল গঠন করে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের সময় একটি বাঘ ও একটি বাঘিনীকে খাঁচায় বন্দি করা হয়।

    তদন্তে দেখা যায়, সহজ-সরল ব্যক্তিদের আক্রমণ করে হত্যা করছিল বাঘিনী। তাই তাকে লখনউয়ের চিড়িয়াখানায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেখানেই তার বাকি জীবন কাটবে।

    আরও পড়ুন- হিমাচল প্রদেশে মেঘ ভাঙা বৃষ্টি! তছনছ কুলু, পার্বতী উপত্যকা, ভিডিও চমকে দেবে

    তদন্তে আরও জানা যায়, বাঘটি বন থেকে বেরিয়ে এলেও কোনও মানুষকে আক্রমণ করেনি। তার গলায় কলার আইডি পরিয়ে দুধওয়া টাইগার রিজার্ভের কোর জোন এলাকায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সেখানে বন বিভাগের দলটি ৬ মাস ধরে সেটির আচরণ এবং স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণ করবে।

    Published by:Suman Majumder
    First published:

    Tags: Tiger, UttarPradesh

    পরবর্তী খবর