• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • KERALA WOMAN MAKES MAN PAY RS 25000 IN CHARITY FOR DECLARING HER AVAILABLE ON WHATSAPP

হোয়াটসঅ্যাপে মহিলার সঙ্গে অশোভন চ্যাট, ফলাফল জানলে অবাক হবেন!

ঘটনাটার মোড় যে এদিকে ঘুরবে সেটা স্বপ্নেও ভাবেননি কেরলের এক ব্যক্তি ৷ হোয়াটসঅ্যাপে মহিলাকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার ফল যে এরকম

ঘটনাটার মোড় যে এদিকে ঘুরবে সেটা স্বপ্নেও ভাবেননি কেরলের এক ব্যক্তি ৷ হোয়াটসঅ্যাপে মহিলাকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার ফল যে এরকম

  • Share this:

    #কেরল: ঘটনাটার মোড় যে এদিকে ঘুরবে সেটা স্বপ্নেও ভাবেননি কেরলের এক ব্যক্তি ৷ হোয়াটসঅ্যাপে মহিলাকে কুপ্রস্তাব দেওয়ার ফল যে এরকম হবে, তা আগে থেকে টের পেলে হয়তো এ পথে কখনই হাঁটতেন না তিনি ৷ তবে কথায় আছে না, ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না ৷

    ঘটনাটি হল, কেরলের এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংস্থার সিইও শ্রীলক্ষ্মী সতীশ ৷ বেশ কিছুদিন ধরেই হোয়াটসঅ্যাপে একটা অচেনা নাম্বার থেকে মেসেজ পাচ্ছিলেন, মেসেজে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হচ্ছিল, যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার জন্য তাঁর ‘রেট’কত ? এমনকী, হোটেল রুম বুক করার কথাও লিখছিলেন ব্যক্তি ৷ প্রথম প্রথম পুরো ব্যাপারটি এড়িয়ে যান শ্রীলক্ষ্মী৷ কিন্তু এই হোয়াটসঅ্যাপের মাত্রা বাড়তেই থাকে ৷ আরও কিছু অচেনা নাম্বার থেকে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ আসতে শুরু করে ৷ মেসেজে বিভিন্ন পুরুষ তাঁকে নানারকম ‘রেট’ দিতে শুরু করে ৷ ‘রেট’ গিয়ে পৌঁছয় ২৫০০০ টাকায় !

    এরপরই নড়েচড়ে বসেন শ্রীলক্ষ্মী ৷ হোয়াটসঅ্যাপের বার্তালাপের স্ক্রিন শট নিয়ে সোজা হাজির হন পুলিশে ৷ তবে, ব্যক্তি শাস্তি হিসেবে শ্রীলক্ষ্মী যা চান, তাতে হতবাক সবাই ৷ শ্রীলক্ষ্মী অভিযুক্তের কাছ থেকে ২৫০০০ টাকা চান, এবং সেটা দিতে বলেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় ! শ্রীলক্ষ্মী চান, ব্যক্তি যেন তাঁর ছেলের হাত দিয়েই এই টাকাটি পাঠান স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কাছে৷ কোনও উপায় না দেখে ব্যক্তি অক্ষরে অক্ষরে পালন করে শ্রীলক্ষ্মীর কথা !

    First published: