নাচ দিয়েই গোষ্ঠী বিদ্বেষের যোগ্য জবাব কেরল মেডিকো’র, আবার তুমুল জনপ্রিয়তা পেল ভিডিও!

নাচ দিয়েই গোষ্ঠী বিদ্বেষের যোগ্য জবাব কেরল মেডিকো’র, আবার তুমুল জনপ্রিয়তা পেল ভিডিও!

নাচ দিয়েই গোষ্ঠী বিদ্বেষের যোগ্য জবাব কেরল মেডিকো’র, আবার তুমুল জনপ্রিয়তা পেল ভিডিও!

এবার সেই সব ট্রোলিংয়ের জবাবে এবার ত্রিশূর মেডিকেল কলেজের আর ছাত্রছাত্রী এগিয়ে এলেন।

  • Share this:

#কেরল: বনি এম-এর (Boney M.) বিখ্যাত গান রাসপুতিনের (Rasputin) সঙ্গে নেচে গোষ্ঠী বিদ্বেষের মুখোমুখি হয়েছিলেন কেরলের মেডিকেল কলেজের দুই ছাত্র ছাত্রী। তাঁদের খুব বিশ্রী ভাবে ট্রোল করা হয়। তবে 'খুন কা বদলা খুন' এই পথে না গিয়ে বরং আবার তাঁদের আকর্ষণীয় নাচের তালেই জবাব দিলেন এই মেডিকেল কলেজের স্টুডেন্টরা। প্রথমবার নাচের ভিডিও দেওয়ার পর তাঁদের লাভ জিহাদ ও নানা রকমের কদর্য গোষ্ঠী বিদ্বেষমূলক কথা শুনতে হয়েছিল। প্রথম ভিডিওতে মাত্র দু'জন ছিলেন। এ বার সেই সব ট্রোলিংয়ের জবাবে ত্রিশূর মেডিক্যাল কলেজের আরও ছাত্রছাত্রী এগিয়ে এলেন। সবাই মিলে আবার একটি নাচের ভিডিও করেছেন যা আবার ভাইরাল হয়েছে।

তবে এ বারেও তাঁরা সেই একই গান বেছে নিয়েছেন। দু'জনের বদলে চার জনকে জমিয়ে নাচতে দেখা যাচ্ছে এই ভিডিওতে। নাচের শেষে ভুরু নাচিয়ে তাঁরা যেন বিদ্বেষ যাঁরা করেন তাঁদের দিকে একটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছেন। অর্থাৎ এ ভাবে বিতর্কিত মন্তব্য আসতে থাকলে তাঁরাও একের পর এক নাচের ভিডিও দিয়ে যাবেন। স্টেপস এগেইনস্ট হেট্রেড অর্থাৎ ঘৃণার বিরুদ্ধে এই নাচের তাল এরকমই হ্যাশট্যাগ সমেত এই ভিডিও দেওয়া হয়েছে আর নেটিজেনরা বেশ পছন্দও করেছেন এই ভিডিওটি।

প্রথম ভিডিওতে দেখা গিয়েছিল ডাক্তারির ছাত্র নবীন কে রজক ও জানকী এম ওমকুমারাকে। মনের আনন্দে নেচে শুধুই সবাইকে একটু চিয়ার আপ করতে চেয়েছিলেন এঁরা দু'জনে। প্রথম ভিডিও বেশ জনপ্রিয় হয় এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সবাই সেটা পছন্দ করতেও শুরু করে। কিন্তু কয়েকজন নবীনের ধর্ম তুলে প্রশ্ন করতে শুরু করেন এবং ধীরে ধীরে সেটা একটা গোষ্ঠী বিদ্বেষমূলক উস্কানিতে এসে দাঁড়ায়।

নবীন ডাক্তারির চতুর্থ বর্ষের ছাত্র এবং তাঁর থেকে ঠিক এক বছরের জুনিয়র হলেন জানকী। চিকিৎসা শাস্ত্র নিয়ে পড়াশোনা করলেও তাঁদের নাচের দক্ষতাও যে কিছু অংশে কম নয় সেটা বেশ স্পষ্ট। দু'-একজন বাজে কথা বললেও এদের দুজনকে বেশীরভাগ নেটিজেনই কুর্নিশ জানিয়েছেন।

জানকী আর নবীনের আরও একটি ভিডিও দেখেও আপ্লুত হয়েছেন সবাই। ঘৃণার বিরুদ্ধে যোগ্য জবাব দিয়েছেন তাঁরা বলে জানিয়েছেন নেটিজেনরা।

Published by:Simli Raha
First published: