দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

মন্দিরের পুরোহিতের পায়ের তলায় জ্বলন্ত কয়লা, কোলে ছোট বাচ্চা! ভিডিও ভাইরাল হতেই শোরগোল

মন্দিরের পুরোহিতের পায়ের তলায় জ্বলন্ত কয়লা, কোলে ছোট বাচ্চা! ভিডিও ভাইরাল হতেই শোরগোল
Grab from the viral video shows the priest walking on coals with a child.

প্রতিবছর বুলাপুর গ্রামের দুর্গাদেবী মন্দিরে, জ্বলন্ত কয়লার উপর দিয়ে হাঁটা একটি সাধারণ রীতি যা দশেরার দিন ঐতিহ্যের অংশ হিসাবে পালন করা হয়।

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: অনেক পুরনো রীতি৷ বহু বছর ধরে পালন করা হচ্ছে দশেরার দিন৷ এই রীতিকে পূণ্য মনে করেন কর্ণাটকের হাভেরি জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দারা৷ সেই রীতি মেনে এবছরও পায়ের তলায় জ্বলন্ত কয়লার ওপর হাঁটলেন বুলাপুর গ্রামের দুর্গাদেবী মন্দিরের পূজারী বাসবরাজপ্পা স্বামী৷ তাঁর সঙ্গে তিনি কোলে নিলেন ছোট বাচ্চা৷

জানা গিয়েছে যে, সন্তানের মঙ্গলকামনায় এমন নিয়ম পালন করেন তাদের অভিভাবকরা৷ তবে এভাবে বাচ্চাকে পূজারীর কোলে তুলে দেওয়া আদতে তার জীবনের ঝুঁকি নেওয়া বলেই অনেকে মনে করেন৷ তাই এই ধরণের কুসংস্কারের বিরুদ্ধে সরবও হয়েছেন বহু মানুষ৷ এতে শিশুর মানসিক অবস্থার ওপরও খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করছেন অনেক শিশু সুরক্ষার সঙ্গে যুক্ত আধিকারিকরা৷

প্রতিবছর বুলাপুর গ্রামের দুর্গাদেবী মন্দিরে, জ্বলন্ত কয়লার উপর দিয়ে হাঁটা একটি সাধারণ রীতি যা দশেরার দিন ঐতিহ্যের অংশ হিসাবে পালন করা হয়। এবছরও এমন ভিডিও ভাইরাল হয়েছে এবং তারপরই এই রীতি বা কুসংস্কারের বন্ধের দাবি উঠেছে৷ অনেকেরই বক্তব্য, কোনও ভাবে যদি পূজারীর কোল থেকে জ্বলন্ত কয়লার ওপর শিশু পড়ে যায়, তাহলে তার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে৷

এখনও পর্যন্ত রাত্তিহল্লি থানায় অভিভাবক বা মন্দিরের পুরোহিতের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। তবে শিশু অধিকারের সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা মনে করেন যে, এই ঘটনার ফলে উদ্বেগ বাড়ছে৷

"শিশুকে যুক্ত করে এধরণের রীতি একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়৷ এই ধরণের নিয়ম মানার মধ্যে শিশুদের প্রতি অবহেলার ছাপ স্পষ্ট৷ এবং মন্দিরের পুরোহিত এই কাজে লিপ্ত হওয়ার ফলে আরও বেশি মানুষ এসবে উৎসাহিত হন৷ জ্বলন্ত কয়লার উপর হাঁটা এবং ধোঁয়া থেকে শিশুর মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। এমন রীতির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া উচিত," জানিয়েছেন চাইল্ড রাইটস ট্রাস্টের বাসুদেব শর্মা৷

Published by: Pooja Basu
First published: October 28, 2020, 11:43 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर