• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • KARNATAKA GOVERNMENT URGES BENGALURU IT COMPANIES TO PERMIT WORK FROM HOME TILL DECEMBER 2022 PBD TC

Work from Home: ওয়ার্ক ফ্রম হোমের মেয়াদ বাড়ল ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত, কেন এমন সিদ্ধান্ত কর্ণাটকে?

ওয়ার্ক ফ্রম হোমের মেয়াদ বাড়ল ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত, কেন এ হেন সিদ্ধান্ত রাজ্যের?

বেঙ্গালুরুর আইটি (IT) সংস্থাগুলোর কাছে অনুরোধ করেছে কর্নাটক সরকার- ওয়ার্ক ফ্রম হোমের (Work from Home till December 2022) মেয়াদ যেন ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত বাড়ানো হয়৷

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: যাঁদের বাড়িতে বসে কাজ করার উপযুক্ত পরিবেশ আছে, তাঁদের পক্ষে খুব সম্ভবত এটা সুখবর! তবে যাঁরা ওয়ার্ক ফ্রম হোম (work from home) বন্দোবস্তে একেবারেই স্বচ্ছন্দবোধ করছেন না, নেহাত সরকারি নিয়ম বলে বেঙ্গালুরুর অফিস (Bengaluru Office) ছেড়ে বসে আছেন নিজের নিজের বাড়িতে, তাঁদের এই খবরে অস্বস্তি আরও বাড়বে বই কমবে না। কেন না, বেঙ্গালুরুর আইটি (Bengaluru IT companies) সংস্থাগুলোর কাছে অনুরোধ করেছে কর্ণাটকে সরকার (Karnataka Government)- ওয়ার্ক ফ্রম হোমের (Work from home till December 2022) মেয়াদ যেন ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হয়!

জানা গিয়েছে যে সম্প্রতি এই মর্মে ডিপার্টমেন্ট অফ ইলেকট্রনিকস, ইনফরমেশন টেকনোলজি (Department of Electronics, Information Technology), সংক্ষেপে DoE, IT বেঙ্গালুরুর ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অফ সফ্টওয়্যার অ্যান্ড সার্ভিস কোম্পানিজ (National Association of Software and Service Companies), সংক্ষেপে NASSCOM-এর কাছে এই মর্মে একটি চিঠি পাঠিয়েছে। সেই চিঠিতে ওয়ার্ক ফ্রম হোম আপাতত চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধের কারণ স্পষ্ট করা হয়েছে কর্ণাটকে সরকারের তরফে।

আরও পড়ুন World Most Unsafe City: বিশ্বের সবথেকে বিপজ্জনক শহরগুলির মধ্যে রয়েছে ভারতের এই দুটি গুরুত্বপূর্ণ শহরও!

এই জায়গায় এসে স্পষ্ট করে দেওয়া উচিত যে সারা বেঙ্গালুরু জুড়ে ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ জানানো হয়নি কর্ণাটকে সরকারের তরফে। শুধুমাত্র বেঙ্গালুরুর আউটার রিং রোড (Outer Ring Road), সংক্ষেপে ORR এলাকায় যে আইটি অফিসগুলো আছে, কেবল তাদের কাছেই এই অনুরোধ পেশ করা হয়েছে। কেন না, ব্যাঙ্গালোর মেট্রো রেল কর্পোরেশন লিমিটেড (Bangalore Metro Rail Corporation Limited), সংক্ষেপে BMCRL ওই এলাকায় পাতালপথ বিস্তারের কাজ শুরু করেছে, যা চলবে আউটার রিং রোডে অবস্থিত সেন্ট্রাল সিল্ক বোর্ড (Central Silk Board) থেকে কেআর পুরম (KR Puram) পর্যন্ত।

সরকারের তরফে এই অনুরোধ জানানোর যুক্তিসঙ্গত কারণ রয়েছে। ছ'টি লেন এবং সার্ভিস রোড থাকা সত্ত্বেও আউটার রিং রোডে বেশিরভাগ আইটি পার্ক এবং অফিস থাকার কারণে যানজট (Traffic in Bengaluru) লেগেই থাকে, যা পাতালপথের কাজ চলার সময়ে দুরূহ আকার ধারণ করবে। তাই সব দিক বিবেচনা করে কর্ণাটকে সরকার এই অনুরোধ পেশ করেছে ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অফ সফ্টওয়্যার অ্যান্ড সার্ভিস কোম্পানিজের কাছে। পাশাপাশি, ডিপার্টমেন্ট অফ ইলেকট্রনিকস, ইনফরমেশন টেকনোলজির চেয়ারম্যান ইভি রমনা রেড্ডি (EV Ramana Reddy) একটি প্রস্তাবপত্রও পেশ করেছেন। তাতে বলা হয়েছে যে একান্তই যদি অফিস বন্ধ রাখা না যায়, তাহলে যাঁদের অফিসে না এলে চলবে না, শুধুমাত্র সেই সব কর্মীদেরই অফিসে বসে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হোক। সেই সঙ্গে রেড্ডি এই প্রস্তাবও পেশ করেছেন যে এক্ষেত্রে ওই কর্মীরা যেন অফিসে আসার জন্য বাস এবং সাইকেল ব্যবহার করেন, (Office in Bengaluru) কেন না বাস লেন আছেই, সাইকেল লেনের আলাদা করে অনুমতি দেওয়া হবে, তাতে যানজট কিছুটা হলেও কমবে!

Published by:Pooja Basu
First published: