Home /News /national /
মানা হচ্ছিল বিয়ের আচার অনুষ্ঠান, মাথা ঘুরে পড়ে গেলেন কনে, তারপর এক অন্য গল্প

মানা হচ্ছিল বিয়ের আচার অনুষ্ঠান, মাথা ঘুরে পড়ে গেলেন কনে, তারপর এক অন্য গল্প

karnataka bride declared brain dead after brai stroke just before wedding day family donates organs- Photo -File

karnataka bride declared brain dead after brai stroke just before wedding day family donates organs- Photo -File

৬ ফেব্রুয়ারি বিয়ের আগের দিনের অনুষ্ঠান চলছিল৷ বিয়ের (Wedding) আগে যে সব রীতিনীতি মানা হয় আনন্দের সঙ্গে সেই রীতি মানছিলেন হবু স্বামী-স্ত্রী৷

  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: কর্নাটক (Karnataka)  থেকে ভারী অদ্ভুত খবর সামনে এসেছে৷ যা একদিকে খুবই মন খারাপের অন্যদিকে আবার এক অন্য মানবিক দিক তুলে ধরেছে৷ ঘটনাটি কর্নাটকের কোলারের৷ ৬ ফেব্রুয়ারি বিয়ের আগের দিনের অনুষ্ঠান চলছিল৷ বিয়ের (Wedding) আগে যে সব রীতিনীতি মানা হয় আনন্দের সঙ্গে সেই রীতি মানছিলেন হবু স্বামী-স্ত্রী৷ একদিন পরেই ছিল বিয়ে৷ ৭ ফেব্রুয়ারি ছিল বিয়ের (Wedding) তারিখ৷ এর ঠিক আগেই হঠাৎ করে পড়ে যান হবু বউ৷ দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়৷ সেখানে গিয়ে যানা যায় বউয়ের ব্রেন স্ট্রোক (Brain Stroke) হয়েছে৷ শুধু সেটুকুই নয়  সেই তরুণী তার মধ্যেই ব্রেন ডেড (Brain Dead) হয়েছিলেন৷

    এরপরেই দারুণ সিদ্ধান্ত নেয় ওই তরুণীর পরিবার৷ তাঁরা নিজেদের মেয়ের অঙ্গদান (Organ Donation) করার সিদ্ধান্ত নেন৷ তাঁরা নিজেদের মেয়েক অন্যের মধ্যে বেঁচে থাকতে দেখতে চান৷

    karnataka bride declared brain dead after brai stroke just before wedding day family donates organs- Photo Courtesy- TOI karnataka bride declared brain dead after brai stroke just before wedding day family donates organs- Photo Courtesy- TOI

    এই ঘটনা কালোরের কোডিচেরেবু গ্রামের৷ মেয়েটির নাম চৈত্রা কেআরের৷ শুক্রবারই তাঁকে ব্রেন ডেড ঘোষণা করা হয়৷ ব্রেন স্ট্রোকের পর তাঁকে বেঙ্গালুরুর ন্যাশানাল ইন্সটিটিউট অফ মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরো সায়েন্স -এ ভর্তি করা হয়৷ এখানে ডক্টর শশীধরণ এচএন -টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে জানান, ‘‘ব্রেনস্ট্রোক (Brain Stroke) পর প্রায় চার থেকে সাড়ে চার ঘণ্টা সময় খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়৷ এই সময়টাকে গোল্ডেন আওয়ার্স হিসেবে দেখা হয়৷ চৈত্রাকে যখন আমাদের কাছে আনা হয় তখন এই সময় পেরিয়ে গিয়েছিল৷ ফলে সবরকম চেষ্টা করেও তাঁকে আমরা ফিরিয়ে আনতে পারিনি৷ তাঁকে ব্রেন ডেড  (Brain Dead) ঘোষণা করা হয়৷ ’’

    আরও পড়ুন - Valentine's Day: প্রেমের দিনের ভোরেই সফল উৎক্ষেপন ISRO-র, দেশের সুরক্ষায় নজরদারি চালাবে এই স্যাটেলাইট, দেখুন ভিডিও

    এরপর চৈত্রার পরিবারের সহমতিতে তাঁর দুই কিডনি, হার্ট ভালভ, কর্নিয়া (Organ Donation) নিয়ে নেওয়া হয়৷ এরপর রাজ্যের অঙ্গ প্রত্যার্পণ সোসাইটির উদ্যোগে যাঁদের এই জিনিসগুলি প্রয়োজন তাঁদের দিয়ে দেওয়া হয়৷ ডক্টর শশিধরের মত অনুযায়ি যে নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটল সেখানে প্রথম এই ধরণের কাজ হল৷ আর কর্নাটক রাজ্যে এটা ১২ বার হল৷

    আরও পড়ুন - Explained: ভালবাসার উদযাপন না মুনাফার বাজার? ভ্যালেন্টাইনস ডে নিয়ে চমকে দেবে এই তথ্য

    চৈত্রার এই শনিবার শেষকৃত্য সমাধা হয়েছে৷ তাঁর কাকা নারায়ণ স্বামী বলেন, ‘‘চৈত্রা ছোটবেলা থেকেই পড়াশুনোয় খুব ভাল৷ তিনি লেকচারার হতে চেয়েছিলেন৷ নিজের বিএডের জন্য প্রস্তুতি সারছিলেন তিনি৷ তার বাড়ির কাছের স্কুলে তিনি পড়াতেন৷’’

    মৃত ব্যক্তির দেহ থেকে অঙ্গদান করা হয়৷

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Karnataka, Marriage, Wedding

    পরবর্তী খবর