Home /News /national /

Omicron In India: এক ধাক্কায় ৬০০ জন বিশেষ নজরদারিতে, ওমিক্রন আতঙ্কে ভুগছে কর্ণাটক

Omicron In India: এক ধাক্কায় ৬০০ জন বিশেষ নজরদারিতে, ওমিক্রন আতঙ্কে ভুগছে কর্ণাটক

প্রতীকী ছিত্র

প্রতীকী ছিত্র

Omicron Fear In Bengaluru: বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বলা হয়েছে, এখনও পর্যন্ত মোট ৫৯৮ জন আন্তর্জাতিক যাত্রীকে বিশেষ নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

  • Share this:

    #বেঙ্গালুরু: দুই বিদেশ ফেরতের শরীরে ওমিক্রন (Omicron) প্রজাতির উপস্থিতি পাওয়ার পর থেকে কর্ণাটক (Karnataka) প্রশাসনের তৎপরতা তুঙ্গে উঠেছে। কোনও ভাবে সংক্রমণ যাতে ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্য এ বার বিদেশ সমস্ত যাত্রীদেরই বিশেষ নজরদারিতে রাখতে চলেছে কর্ণাটক প্রশাসন। কর্ণাটক প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সমস্ত আন্তর্জাতিক যাত্রীর ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক করোনা পরীক্ষা করা হবে। পরীক্ষা হবে বেঙ্গালুরু (Bengaluru) বিমানবন্দরেই।

    সোমবার কর্ণাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে শিবকুমার জানিয়েছেন, দুই বিদেশ যাত্রীর শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে, আর সেই সংক্রমণের প্রকৃতি ডেল্টার প্রকৃতি থেকে কিছুটা আলাদা। যাতে কোনও ভাবে শহরে করোনা সংক্রমণ প্রবেশ করতে না পারে, তার জন্য ইতিমধ্যে বিমানবন্দরে আরটিপিসিআর পরীক্ষা (RTPCR Test) বাধ্যাতমূলক করেছে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ, নিয়মিত থার্মাল চেক-আপ করা হচ্ছে।

    আরও পড়ুন: করোনায় মৃত্যুর ১৫ মাস পরে হাসপাতাল থেকে উদ্ধার পচাগলা দেহ, কোন রাজ্যে ঘটেছে এই ঘটনা?

    বেঙ্গালুরুর এক স্বাস্থ্য আধিকারিক বলেছেন, “যে সমস্ত যাত্রীরা অন্য দেশ থেকে ভারতে আসছেন, তাঁদের প্রথমে করোনার পরীক্ষা করা হচ্ছে। তার পর যদি পরীক্ষার ফলে দেখা যায়, তাঁরা সুস্থ আছেন, তার পরেও তাঁদের সাত দিনের একটি নিভৃতবাসে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সাত দিন পর ফের পরীক্ষা করা হচ্ছে তাঁদের। তার পর সুস্থতা প্রমাণ করতে পারলেই তাঁরা নজরদারি থেকে মুক্তি পাচ্ছেন।” বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বলা হয়েছে, এখনও পর্যন্ত মোট ৫৯৮ জন আন্তর্জাতিক যাত্রীকে বিশেষ নজরদারিতে রাখা হয়েছে। পাশাপাশি যাত্রীদের টিকাকরণের রিপোর্টও দেখা যাচ্ছে। এ ছাড়া উচ্চ সংক্রমণ হার রয়েছে, এমন দেশ থেকে যাঁরা আসছেন, তাঁদের আরটিপিসিআর টেস্টও করা হচ্ছে। এ ছাড়া বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ আলাদা করে গুরুত্ব দিতে চাইছে কেরল ও মহারাষ্ট্র থেকে আগত যাত্রীদের বিষয়ে। শুধু আন্ততর্জাতিক যাত্রীদের জন্যই নয়, দেশের মধ্যে থেকে যাঁরা কর্ণাটকে আসছেন, তাঁদেরও যাতে বাধ্যতামূলক ভাবে করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট চাওয়া হয়, সেই বিষয়টিও নজরে রাখছে সে রাজ্য।

    আরও পড়ুন: ওমিক্রনে আক্রান্ত বুঝবেন কী ভাবে? দক্ষিণ আফ্রিকার চিকিৎসক বললেন উপসর্গ

    বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরে কাজ করছেন মোট ৪৯ জন স্বাস্থ্যকর্মী। তবে অভিযোগ করা হচ্ছে যাত্রীদের তরফ থেকেও। তাঁরা বলছেন, বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ অকারণে হেনস্থা করছে যাত্রীদের। আবুধাবি থেকে আগত একটি পরিবার সংবাদ সংস্থার কাছে অভিযোগ করেছে, তাঁদের হাতে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট থাকলেও তাঁদের তিন হাজার টাকার বিনিময়ে আরটিপিসিআর টেস্ট করতে বাধ্য করা হয়েছে।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Coronavirus, Covid ১৯

    পরবর্তী খবর