মধ্যপ্রদেশের জঙ্গলে ছোট্ট ছেলেটাকে ছিঁড়েখুড়ে খাচ্ছিল ভাল্লুক, ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঁচাল মোষের দল

মধ্যপ্রদেশের জঙ্গলে ছোট্ট ছেলেটাকে ছিঁড়েখুড়ে খাচ্ছিল ভাল্লুক, ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঁচাল মোষের দল

ভাল্লুকের আক্রমণ থেকে যুবককে বাঁচাল মোষের দল

ভাল্লুকের আক্রমণ থেকে যুবককে বাঁচাল মোষের দল

  • Share this:

    #ভোপাল: রোজকার মতোই জঙ্গলে ছাগলের পাল চড়াতে গিয়েছিল ভোপালের বেতুল গ্রামের বাসিন্দা, ১৫ বছরের দীপক! মঙ্গলবার আচমকাই তার উপর চড়াও হয় বিশাল এক মা ভাল্লুক, সঙ্গে তার ছোট ছানা! ধারাল নখে ছিঁড়েখুড়ে দিতে থাকে দীপককে! প্রাণপন নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করে দীপক, কিন্তু ভাল্লুকের শক্তির সঙ্গে পেরা ওঠা কি মুখের কথা! গলা ফাটিয়ে চিৎকারও করতে থাকে আক্রান্ত যুবক, কিন্তু ঘন জঙ্গলে কে তার ডাকে সাড়া দেবে ?

    ঠিক এমন সময়েই ঘটে গেল 'চমৎকার'! বনের একদিনে চড়ে বেড়াচ্ছিল একদল বুনো মোষ। দীপকের চিৎকার তাদের কানে যায়... নিমেষের মধ্যে ছুটে আসে মোষের দল, ঝাঁপিয়ে পড়ে ভাল্লুকটির উপর। মোষেদের সঙ্গে পেড়ে ওঠে না মা ভাল্লুক... রণে ভঙ্গ দিয়ে ছানাকে নিয়ে পালিয়ে যায়!

    ঠিক যেন রুডিয়ার্ড কিপলিং-এর 'জাঙ্গল বুক'-এর দৃশ্য! তবে, বইয়ের পাতায় নয়, বাস্তবেই দীপককে ভাল্লুকের হাত থেকে বাঁচাল মোষের দল! বর্তমানে দীপক বেতুল জেলা হাসপাতালে ভর্তি, জানালেন, '' আমি জঙ্গলে ছাগল চড়াতে গিয়েছিলাম। আচমকাই একটি মা ভাল্লুক ও ছানা আমার উপর হামলা করে! আমি প্রাণভয়ে চেঁচাতে থাকি! তখনই ছুটে আসে এই মোষের দল! ঝাঁপিয়ে পড়ে ভাল্লুকদুটির উপর। প্রায় ১৫ থেকে ২০ টি মোষ ছিল দলে। ''

    দূর থেকে দাঁড়িয়ে এই গোটা দৃশ্য দেখছিল গ্রামেরই আরেকটি ছেলে। সেই ছুটে গিয়ে খবর দেয় দীপকের বাড়িতে! দীপকের বাবা জঙ্গলে গিয়ে দেখেন, মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে ছেলে। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওবা হয়। সেখান থেকে স্থানান্তর করা হয় বেতুল জেলা হাসপাতালে।

    দকইণ বেতুলের ডিএফও পিডি গ্যাব্রিয়েল বলেন, ওই এলাকায় প্রচুর ভালুক রয়েছে! দিনের পর দিন ভালুকের আক্রমণের ঘটনাও বাড়ছে। ছেলেটি ভাগ্যবান মোষের দল ওকে এ'যাত্রায় প্রাণে বাঁচাল!''

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    লেটেস্ট খবর