• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • JOURNALISTS COVID DEATH CENTRE APPROVES FINANCIAL ASSISTANCE TO 67 FAMILIES OF THE JOURNALISTS WHO LOST THEIR LIVES TO COVID 19 SB

Indian Journalists Covid Death: কোভিডে মৃত্যু, ৬৭ সাংবাদিকের পরিবারকে ৫ লক্ষ করে সাহায্য মোদি সরকারের

প্রবল ঝুঁকিতে কাজ

Journalists Covid Death: ২০২০ ও ২০২১ সালে করোনায় মৃত্যু হয়েছে, এমন ৬৭ জন সাংবাদিকের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিল নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) সরকার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সারা দেশে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ (Covid Second Wave)। দিকেদিকে মৃত্যুমিছিল। সেই তালিকায় রয়েছেন সাংবাদিকরাও। প্রায় প্রতিটি রাজ্যেই করোনা কেড়ে নিয়েছে বহু সংবাদকর্মীর প্রাণ। ২০২০ ও ২০২১ সালে করোনায় মৃত্যু হয়েছে, এমন ৬৭ জন সাংবাদিকের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিল নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) সরকার। এদিন তেমনই ঘোষণা করেছে তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রক। বিষয়টি নিয়ে ট্যুইটও করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

    মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালে করোনায় মৃত ২৬ জন, ২০২১ সালে মৃত ৪১ সাংবাদিকের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হচ্ছে। শুধু তাই নয়, Journalist Welfare Scheme-এর বৈঠক প্রতি সপ্তাহে করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

    অপরদিকে, তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসার দিনই সাংবাদিকদের কোভিডযোদ্ধা হিসেবে ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, 'করোনায় অনেক সাংবাদিক বন্ধু প্রাণ হারিয়েছেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত তাঁদের কোভিড যোদ্ধা ঘোষণা করা হয়নি। কোভিডের বিরুদ্ধে মোকাবিলা করাই আমার প্রথম প্রায়োরিটি। আর সাংবাদিকদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়েই কাজ করতে হয়। তাই সমস্ত সাংবাদিকদের কোভিডযোদ্ধা ঘোষণা করছি।'

    প্রসঙ্গত, এর আগে রাজ্য সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ সরকারি অ্যাক্রেডিটেশন প্রাপ্ত সাংবাদিক ও চিত্র সাংবাদিকদের জন্য চালু করেছে স্বাস্থ্য বিমা প্রকল্প ‘মাভৈঃ’। এই বিমার আওতায় নির্দিষ্ট সাংবাদিক এবং তাঁর উপর নির্ভরশীল পরিবারের সদস্যরা প্রতিটি সরকারি এবং তালিকাভুক্ত নির্দিষ্ট কিছু বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে পারবেন। জেলা ও কলকাতার সরকারি স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সাংবাদিকরা রাজ্য সরকারি কর্মীদের মতোই এই স্বাস্থ্য প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারেন। সাংবাদিকের স্ত্রী বা স্বামী, বাবা-মা, ছেলেমেয়ে, অবিবাহিত-বিধবা- বিবাহবিচ্ছিন্না বোন এবং নাবালক ভাইবোন এই স্বাস্থ্য বিমার আওতায় আসবেন। ৬৫ বছর বয়স পর্যন্ত এই স্বাস্থ্যবিমার জন্য আবেদন করা যায়।

    Published by:Suman Biswas
    First published: