সাংবাদিককে নগ্ন করে বেধড়ক মারধর, জেলে ভরে মুখে প্রস্রাব পুলিশ কর্তার

সাংবাদিককে নগ্ন করে বেধড়ক মারধর, জেলে ভরে মুখে প্রস্রাব পুলিশ কর্তার
  • Share this:

#লখনউ: ফের উত্তরপ্রদেশে সাংবাদিকের সঙ্গে পুলিশের দুর্ব্যবহার ৷ সুপ্রিম কোর্টের ভৎর্সনার পরও হুঁশ ফেরেনি। এবার সাংবাদিককে বেধড়ক পিটিয়ে জেলে পুরল পুলিশ। গারদে নগ্ন করিয়ে মুখে প্রস্রাব করারও অভিযোগ রেল পুলিশের এক অফিসারের বিরুদ্ধে। এর আগে ট্যুইট করে যোগী আদিত্যনাথ প্রশাসনের কোপে পড়েছিলেন সাংবাদিক প্রশান্ত কানোজিয়া। সেই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের ভৎর্সনার পরও জিআরপির রোষে স্থানীয় টিভি চ্যানেলের সাংবাদিক।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের শামলিতে ৷ মঙ্গলবার রাতে ধীমানপুরায় মালগাড়ি লাইনচ্যুত হয় ৷ খবর আসতেই ক্যামেরা নিয়ে ঘটনাটি কভার করতে গিয়েছিলেন ওই সাংবাদিক ৷ জিআরপি সেই খবর করতে বাধা দেয় বলে অভিযোগ ৷ এরপরই ঝামেলার সূত্রপাত ৷ থানায় নিয়ে যাওয়া হয় সাংবাদিককে ৷ সেখানে বেআইনিভাবে আটকে রেখে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ ৷ চড়, থাপ্পড়, কিল, লাথি ঘুষি কিছুই বাদ যায়নি ৷ মাটিতে ঠেলে ফেলে দিয়ে আছড়ে ভেঙে ফেলা হয় ওই সাংবাদিকের ক্যামেরা ৷ জামার কলার ধরে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয় জেলে ৷ তাতেও রাগ মেটেনি ৷ শেষে জোর করে মুখে প্রস্রাব করার মতো অভিযোগ উঠেছে রাকেশ কুমার নামে ওই রেল পুলিশের ওই অফিসারের বিরুদ্ধে ৷ তাঁর সঙ্গী ছিলেন কনস্টেবল সঞ্জয় পওয়ার ৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই শুরু হয় বিতর্ক ৷ ঘটনা জানাজানি হতেই মুক্তি দেওয়া হয় ওই সাংবাদিকে। সাসপেন্ড করা হয় অভিযুক্ত জিআরপি কর্মী ও অফিসারকে।

First published: 08:01:53 PM Jun 12, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर