• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে কোভিড ভ্যাকসিন, কথা রাখল কেজরিওয়াল সরকার

দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে কোভিড ভ্যাকসিন, কথা রাখল কেজরিওয়াল সরকার

সম্প্রতি দিল্লি সরকারের তরফে এক ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হল, দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে দেওয়া হবে কোভিড ভ্যাকসিন। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের র

সম্প্রতি দিল্লি সরকারের তরফে এক ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হল, দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে দেওয়া হবে কোভিড ভ্যাকসিন। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের র

সম্প্রতি দিল্লি সরকারের তরফে এক ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হল, দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে দেওয়া হবে কোভিড ভ্যাকসিন। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের র

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনার বিরুদ্ধে লড়তে ইতিমধ্যেই দেশজুড়ে টীকাকরণ শুরু হয়েছে। একাধিক রাজ্য সরকারের তরফে বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার কথাও জানানো হয়েছে। তবে সবার থেকে যেন একটু আলাদা কেজরিওয়াল সরকার। হ্যাঁ শেষমেশ কথা রাখলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal)। সম্প্রতি দিল্লি সরকারের তরফে এক ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হল, দিল্লিবাসীর জন্য বিনামূল্যে দেওয়া হবে কোভিড ভ্যাকসিন। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের রাজ্য বাজেটেই স্পষ্ট হয়ে গেল বিষয়টি।

কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য ৫০ কোটি

বাজারে কোভিড ভ্যাকসিনের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫০ টাকা। তবে এখনও দিল্লির অনেক পরিবার এই অর্থ ব্যয় করতেও অসমর্থ। অনেকের কাছেই দু'বেলা খেয়ে বেঁচে থাকাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই সবার কথা মাথায় রেখে দিল্লি বাসীদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সরকার। শহরের সরকারি হাসপাতালগুলিতেই বিনামূল্যে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। বাজেট পেশের সূত্রে 'আম আদমি ফ্রি কোভিড ভ্যাকসিন' নামে এই প্রকল্পের জন্য ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে নতুন হাসপাতাল

করোনার সময় গোটা একটা বছর জুড়ে প্রত্যেক রাজ্যের মতো দাঁতে দাঁত চেপে লড়েছে দিল্লির সরকার। সেই লড়াই এখনও জারি রয়েছে। এমনকি এই নিউ নর্ম্যালে এসেও নানা প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে হয়েছে। সেই সমস্ত বিষয় মাথায় রেখে ও করোনা পরিস্থিতির অভিজ্ঞতাকে পাথেয় করে রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উন্নয়নে প্রায় ১,২৯৩ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে দিল্লির সরকার। এই প্রকল্পের অধীনে জবলপুরী (Jwalapuri), সির্সপুর (Sirspur), মদিপুর (Madipur) ও বিকাশপুরী (Vikaspuri) সহ একাধিক জায়গায় নতুন হাসপাতাল গড়ে উঠবে। একই সঙ্গে ১৯ টি হাসপাতালের সংস্কার করা হচ্ছে। এগুলির পাশাপাশি দিল্লির হাসপাতালগুলিতে প্রায় ১৪,০০০ পর্যন্ত শয্যা সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনাও রয়েছে।

সমস্ত দিল্লিবাসীর জন্য হেল্থ কার্ড

কেজরিওয়াল প্রশাসনের দাবি, রাজ্যবাসীর জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে নিরন্তর কাজ করছে সরকার। আর সেই সূত্রেই স্বাস্থ্য খাতে অর্থ বরাদ্দের বিষয়টি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। এক্ষেত্রে প্রত্যেক দিল্লিবাসীকে একটি হেল্থ কার্ড ইশু করা হবে। এর পাশাপাশি সরকারের তরফে একটি অনলাইন হেল্থ ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম চালু করা হবে। এখানে দিল্লির প্রত্যেক বাসিন্দার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নথিগুলি দেওয়া থাকবে। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানা তথ্যও উপলব্ধ থাকবে এই ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে। এক্ষেত্রে পুরোনো ও অপ্রাসঙ্গিক তথ্যগুলিকে বাদ দেওয়া হবে। আর নতুন ও আপডেটেড ডেটা বেসের সাহায্যে সমস্ত তথ্য সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকবেন চিকিৎসকরা। প্রয়োজনে কোনও মুমুর্ষু রোগীকে সাহায্যও করতে পারবেন তাঁরা।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: