Home /News /national /
JNU কাণ্ডে উঠে এল আরও দুই পড়ুয়ার নাম

JNU কাণ্ডে উঠে এল আরও দুই পড়ুয়ার নাম

আফজল গুরুর পক্ষে স্লোগান দেওয়া হয়েছিল জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে। পুলিশি জেরায় স্বীকার করলেন উমর খালিদ এবং অনির্বাণ ভট্টাচার্য। জেরায় উঠে এল আরও দুই পড়ুয়ার নাম। এদিকে আজও জামিন পেলেন না JNU কাণ্ডে ধৃত ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার। ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাঁর জামিন-আর্জির শুনানি পিছিয়ে দিল দিল্লি হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন...
  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আফজল গুরুর পক্ষে স্লোগান দেওয়া হয়েছিল জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে। পুলিশি জেরায় স্বীকার করলেন উমর খালিদ এবং অনির্বাণ ভট্টাচার্য। জেরায় উঠে এল আরও দুই পড়ুয়ার নাম। এদিকে আজও জামিন পেলেন না JNU কাণ্ডে ধৃত ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার। ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাঁর জামিন-আর্জির শুনানি পিছিয়ে দিল দিল্লি হাইকোর্ট।

     দু'দিনের লুকোচুরি শেষে, মঙ্গলবার রাতেই ক্যাম্পাসের বাইরে এসে আত্মসমর্পণ করেন দেশদ্রোহী স্লোগান দেওয়ায় অভিযুক্ত জেএনইউ-এর দুই ছাত্র উমর খালিদ এবং অনির্বাণ ভট্টাচার্য। বুধবার সকালে দুই পড়ুয়াকে টানা পাঁচ ঘণ্টা জেরা করল দিল্লি পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, জেরায় দু'জনেই একাধিক স্বীকারোক্তি করেছেন,

    জেরায় স্বীকারোক্তিঃ- আফজল গুরুর সমর্থনে স্লোগান দেওয়া হয়েছিল JNU-তে - আগেও আফজল গুরুর ফাঁসি সংক্রান্ত আলোচনা ও বিতর্ক হয়েছিল
    - 'দেশবিরোধী' স্লোগান উঠলে তা বহিরাগতদের কীর্তি - অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে সমর্থন চাওয়া হয়নি - সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের খবর ছড়িয়েছিল - অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন রিয়াজ ও বনজ্যোৎস্না লাহিড়ি নামে JNU-র আরও ২ পড়ুয়া৯-ই ফেব্রুয়ারি, আফজল গুরুর মৃত্যুবার্ষিকীতে আয়োজিত বিতর্কিত অনুষ্ঠানে কার কী ভূমিকা ছিল, জেরায় তাও জানতে পেরেছে পুলিশ।উমর খালিদ- অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা

    অনির্বাণ ভট্টাচার্য- অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা। পোস্টার তৈরি এবং ছাত্রদের মধ্যে তা বিলি করা

    রিয়াজ- অনুষ্ঠানের সাউন্ড সিস্টেমের আয়োজন। সোশ্যাল মিডিয়ার ছবি আপলোডের দায়িত্ববনজ্যোৎস্না লাহিড়ি- অনুষ্ঠানের সহ উদ্যোক্তা

     উমর ও অনির্বাণের দাবি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। খতিয়ে দেখা হচ্ছে বাকি দুই পড়ুয়ার ভূমিকাও। অন্যদিকে, এদিনও জামিন পেলেন না জেএনইউকাণ্ডে ধৃত ছাত্র সংসদের সভাপতি কানহাইয়া কুমার। ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাঁর জামিন-আর্জির শুনানি পিছিয়ে দিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট। তবে কানহাইয়া এবং তাঁর আইনজীবীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দিল্লি পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত।

    First published:

    Tags: Afjal guru, Anirban bhattacharya, JNU, Kanhaiya Kumar, Umar khalid