হোম /খবর /দেশ /
হামলার পিছনে জইশ! পাক সেনার মদত আছে, দাবি তদন্তকারী অফিসারের

Jammu Airport Blasts Updates: হামলার পিছনে জইশ! পাক সেনার মদত আছে, দাবি তদন্তকারী অফিসারের

বিস্ফোরণের সঙ্গে জইশ-যোগ স্পষ্ট হচ্ছে।

  • Last Updated :
  • Share this:

#জম্মু: জম্মু বিমানবন্দর বিস্ফোরণের (Jammu Airport Blast) সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে পাক মদতপুষ্ট জইশ-ই-মহম্মদ (Jaish-e-Mohammed)। বিস্ফোরণের তদন্তে যুক্ত এক নিরাপত্তা আধিকারিক রবিবার CNN-News18-কে এমনটাই জানিয়েছেন। NIA মনে করছে, ড্রোনের সাহায্যেই এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। তবে এই ব্যাপারে এখনও কোনও পাকাপোক্ত প্রমাণ NIA-র হাতে এসে পৌঁছয়নি। পুরোটাই পরিস্থিতি ও বিস্ফোরণের ধাঁচের উপর নির্ভর করে বলা হচ্ছে। তদন্ত গড়ালে এই ব্যাপারে আরও স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন NIA আধিকারিকরা। তবে আপাতত বিস্ফোরণের সঙ্গে জইশ-যোগ যেন স্পষ্ট হচ্ছে।

নিরাপত্তা আধিকারিকরা মনে করছেন, সীমান্তের ওপার থেকে একাধিক ড্রোন পাঠানো হয়েছিল। কোনওভাবে সেগুলি নিরাপত্তারক্ষীদের চোখ এড়িয়ে যায়। সেই ড্রোনের সাহায্যেই জম্মু বিমানবন্দরের টেকনিক্যাল অঞ্চলে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। স্থানীয় লোকজনের দাবি, বিস্ফোরণের শব্দ মারাত্মক তীব্র ছিল। বিমানবন্দর থেকে প্রায় দুকিলোমিটার দূর পর্যন্ত বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গিয়েছিল বলে দাবি করেছেন অনেকে। এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর কোনও খবর নেই। তবে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। ঘটনার পরে শ্রীনগরে জারি হয়েছে হাই এলার্ট। NIA-র তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং নিরাপত্তা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে পারেন।

NIA-র এক কর্তা দাবি করেছেন, ''এই ধরণের আক্রমণ পাকিস্তানের সেনা বা আইএসআই-এর সাহায্য ছাড়া করাটা সহজ ছিল না। জইশ জড়িত থাকলেও এই বিস্ফোরণের পিছনে পাক সেনার মদত থাকাটা অসম্ভব নয়।'' উল্লেখ্য, ২৭ জুন রাত ১টা ৩৭ মিনিট ও রাত ১ টা ৪২ মিনিটে পর পর বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের কিছুক্ষণ আগে বায়ুসেনার পেট্রোলিং বাহিনী রাতের আকাশে সন্দেহজনক আলো দেখতে পান। তার পর ওই আলো লক্ষ্য করে এগিয়ে যেতেই বিস্ফোরণের শব্দে চারপাশ কেঁপে ওঠে। জম্মু বিমানবন্দর ভারতীয় বায়ু সেনা দ্বারা পরিচালিত। সেখানে এমন নাশকতার ঘটনার পরই এনআইএ এনএসডি-র আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছন।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Airport, Bomb Blast, Jammu And Kashmir, NIA