Zomato বিতর্ক: অ-হিন্দু জোম্যাটো ডেলিভারি বয় তাই অর্ডার ক্যানসেল, পুলিশি নোটিশ পেলেন জব্বলপুরের যুবক

Zomato বিতর্ক: অ-হিন্দু জোম্যাটো ডেলিভারি বয় তাই অর্ডার ক্যানসেল, পুলিশি নোটিশ পেলেন জব্বলপুরের যুবক
  • Share this:

#ভোপাল: জোম্যাটো বিতর্কে পুলিশের নোটিস। যে যুবক ধর্ম নিয়ে প্রশ্ন তুলে ডেলিভারি বয় বদলাতে বলেছিলেন, তাঁকে নোটিস ধরাল জবলপুর পুলিশ। এদিকে, বৃহস্পতিবার জোম্যাটোর পাশে উবর ইটস্ দাঁড়ানোর পরেই ট্যুইটারে এই দুই সংস্থাকে বয়কটের ডাক দিয়ে অনেকে আসরে নেমে পড়েন। তাদের বিরোধিতা করে সোশাল মিডিয়ায় সরব অন্য পক্ষও ।

জোম্যাটোর তরফে ফৈয়াজ নামে এক যুবক খাবার নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু, তাতে আপত্তি জানান মধ্যপ্রদেশের জবলপুরের বাসিন্দা অমিত শুক্লা। আপত্তি তাঁর খাবারে নয়। খাবার যিনি আনছিলেন তাঁর ধর্মে। জোম্যাটো অবশ্য তাতে কান দেয়নি। কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেয় - খাবারের কোনও ধর্ম হয় না। খাবারই ধর্ম। বুধবার থেকে এ নিয়ে দেশজুড়ে শোরগোল। এবার আসরে পুলিশ। জবলপুর পুলিশ নোটিস ধরাল অমিত শুক্লাকে।

মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরের পুলিশ সুপার অমিত সিং জানিয়েছেন, ‘ওই যুবকের উপর নজর রাখা হবে। ভারতীয় সংবিধান বিরোধী কোনও কিছু টুইট করলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নেওয়া হবে।’

জোম্যাটোর অবস্থান দেশ জুড়ে বাহবা কুড়িয়েছে। তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে অনলাইনে খাবার আনানোর আরেক অ্যাপ উবর ইটস্। এরপরই আসরে নেমে পড়েন অনেকে। অমিত শুক্লাকে সমর্থন করে উবর ইটস- জোম্যাটোকে টুইটারে নিশানা করেন তাঁরা।

জোম্যাটো-উবর ইটস কী রকম মাংস দেয় তা নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন। পাল্টা জবাবও পেয়েছেন। অনেকেই কটাক্ষের সুরে বলছেন, জোম্যাটো, উবর ইটস বা এই ধরনের অ্যাপগুলি কিন্তু খাবার তৈরি করে না। তারা শুধু দোকান থেকে খাবার নিয়ে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দেন। তারা কীভাবে মাংসের মান দেখবে। এভাবেই বৃহস্পতিবারও জোম্যাটো বিতর্কে ট্যুইটার সরগরম।

First published: 09:37:21 PM Aug 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर