Home /News /national /
স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের সফল উৎক্ষেপণে সস্তায় মহাকাশ অভিযানের নজির ইসরোর

স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের সফল উৎক্ষেপণে সস্তায় মহাকাশ অভিযানের নজির ইসরোর

মহাকাশ গবেষণায় আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কীর্তি স্থাপন করল ISRO ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #চেন্নাই: মহাকাশ গবেষণায় আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কীর্তি স্থাপন করল ISRO ৷ রবিবার ভোররাতে নিজস্ব স্ক্র্যামজেট না এয়ার ব্রিদিং ইঞ্জিনের সফল উৎক্ষেপণ ঘটাল ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ৷

    সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরী এই স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন মহাকাশ গবেষণায় ইসরোকে নতুন দিশার সন্ধান দিল ৷ এদিন অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে কোনও বিদেশি পদ্ধতি বা সামগ্রীর ব্যবহার ছাড়াই তৈরি মোট দুটি স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের সফল উৎক্ষেপণ করতে সক্ষম হন ইসরোর বিজ্ঞানীরা ৷

    ইসরোর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, সলিড রকেট বুস্টার অ্যাডভান্সড টেকনলজি ভেহিকলের মাধ্যমে মহাকাশে পাঠানো হয় স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন দুটিকে ৷ রকেটটি মোট ৫৫ সেকেণ্ড মহাকাশে ছিল এবং এর মধ্যে মাত্র ৬ সেকেণ্ডেই রকেটের পরীক্ষাটি করা সম্ভব হয় ৷

    ভারতের কী লাভ হল এই উৎক্ষেপণে তা বুঝতে হলে আগে জানতে হবে স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের প্রয়োজনীয়তা ৷ মহাকাশে পাঠানো যে কোনও রকেট ইঞ্জিনের অক্সিডাইজার এবং তরল জ্বালানির প্রয়োজন হয় ৷ জ্বালানি হিসেবে ইসরো ব্যবহার করে অক্সিজেন ৷ এতে রকেটের মোট ওজন অনেক বেড়ে যায় ৷ ফলে সীমিত ওজনের কারণে রকেট বেশি জিনিস বহন করতে পারে না ৷ কিন্তু স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন এই ক্ষেত্রে একটি যুগান্তকারী পথ দেখিয়েছে ৷

    স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন নিজেই বায়ুমন্ডল থেকে অক্সিজেন নিয়ে তা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করে ৷ এই ইঞ্জিনে আলাদা করে তরল জ্বালানি ভরতে হয় না ৷ ফলে রকেটের বহন ক্ষমতা অনেক বেড়ে যায় ৷ একইসঙ্গে উৎক্ষেপনের খরচও তুলনায় অনেকটা কমে যায় ৷

    স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের পর ভারতও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও ইওরোপিয়ান ইউনিয়নের সঙ্গে এক সারিতে চলে এল ৷

    ইসরোকে তাঁর সাফল্যের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় ৷

    First published:

    Tags: Cheaper, Future Launches Cheaper, ISRO, ISRO Successfully Tests, Scramjet Engine

    পরবর্তী খবর