• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • IPL 2021 BCCI REQUEST THE INDIAN GOVERNMENT TO ALLOW SEPARATE IPL SECURITY CHECK IN COUNTERS AT THE AIRPORT DD

IPL 2021: করোনার কালো ছায়া থেকে কী বাঁচানো যাবে, কেন্দ্রের কাছে বিশেষ আর্জি BCCI -র

IPL 2021: করোনার কালো ছায়া থেকে কী বাঁচানো যাবে, কেন্দ্রের কাছে বিশেষ আর্জি BCCI -র

BCCI is in scared position about organising IPL during Coronavirus - Photo -File

IPL 2021 -র ওপর বড় আশঙ্কার কালো মেঘ, তার নাম coronavirus৷

  • Share this:

    #মুম্বই: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (IPL) -র ১৪ তম মরশুমে ৯ এপ্রিল শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে৷ এদিকে ক্রিকেটার, ফ্রাঞ্চাইজি সদস্যরা, সম্প্রচারকারী সংস্থা এবং টুর্নামেন্টের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত অন্য লোকদের মধ্যে আস্তে আস্তে করোনা সংক্রমণের কেস বাড়তে শুরু করেছে৷ যা বিসিসিআইয়ের জন্য মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ টুর্নামেন্ট চলাকালীন সকলকেই বায়োবাবল বা জৈব সুরক্ষাবলয়ের অংশ হয়ে থাকতে হবে৷ মাঠে দর্শকও ঢুকতে দেওয়া হবে না৷ তবুও এই মিলিয়ন ডলার টুর্নামেন্ট শুরুর আগে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করাই সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়াচ্ছে৷

    করোনার সঙ্গে লড়াই করতে বিসিসিআই আধিকারিকরা নতুন নতুন প্ল্যান করতে বাধ্য হচ্ছেন৷ তারা কেন্দ্র সরকারের কাছে আবেদন করেছেন তারা যে সব বিমান বন্দর দিয়ে যাতায়াত করবেন সেখানে আলাদা চেকইন -চেক আউট কাউন্টার করার আবেদন করেছেন৷ এছাড়াও বায়োবাবল ইন্টিগ্রিটি আধিকারিক রাখা, রোজ করোনা টেস্ট করার মতো বিষয়গুলিও অংশীভূত করা হচ্ছে৷ একদিন আগেই মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গে যুক্ত কিরণ মোরে এবং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের ক্রিকেটার ড্যানিয়েল স্যামস করোনা পজিটিভ হয়েছেন৷ এখন অবধি আইপিএলের সঙ্গে যুক্ত মোট ৩৬ জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন৷

    গত বছর আইপিএলের মরশুম দেশের মাটিতে আয়োজন করা যায়নি করোনা পরিস্থিতির জন্য৷ সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আয়োজন করে যে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছিল তার থেকেই এবারে দেশের মাটিতে আইপিএল আয়োজন করতে চেয়েছিল৷ সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অবশ্য সব ফ্রাঞ্চাইজি দল ঘুরলেও মাত্র তিনটি আলাদা ভ্যেনু ছিল এবং সেখানে সব দলগুলি বাসে করে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াত করত৷

    তবে ২০২১ -র আইপিএল ছ‘টি শহরে আয়োজন করা হয়েছে৷ যার মধ্যে রয়েছে মুম্বই, দিল্লি, কলকাতা, আহমেদাবাদ, বেঙ্গালুরু ও চেন্নাই৷ দলগুলিকে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে প্লেনে চাপতে হবে৷ আর এয়ারপোর্টে এলেই নতুন করে সংক্রমিত হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকবে প্রবল৷ বিশেষত এই মুহূর্তে মুম্বই ও দিল্লিতে করোনা সংক্রমণের হার যেভাবে বাড়ছে তাতে উদ্বেগে রয়েছে খোদ প্রশাসনও৷ সারা দেশেই  করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ ধাক্কা মেরেছে৷

    এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে বিসিসিআই আইপিএলের জন্য আলাদা চেকইন  ও চেকআউট কাউন্টার চেয়েছ যাতে তাদের বায়োবাবল সুরক্ষিত থাকে৷ চেন্নাই এয়ারপোর্টে এরকমভাবেই একজনের করোনা টেস্ট নেগেটিভ আসলেও পাঁচদিন বাদে সে করোনা সংক্রমিত হয়েছে৷ এরপরেই পরিস্থিতি আরও উদ্বেগ বাড়িয়েছে৷ প্রতিটা দল বায়োবাবলে ঢোকার তিন দিন পর এয়ারপোর্টে যাত্রা করবে৷

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    লেটেস্ট খবর