• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • INSTALLED WIFE ON CHAIR WHEN GOT JAILED NITISH TAKES A SWIPE AT LALUS RECORD ON WOMEN EMPOWERMENT UB

‘‌নিজে জেলে গিয়ে স্ত্রীকে মুখ্যমন্ত্রী করেছিলেন’‌, নাম না করে লালুকে কটাক্ষ নীতীশের

‘‌নিজে জেলে গিয়ে স্ত্রীকে মুখ্যমন্ত্রী করেছিলেন’‌, নাম না করে লালুকে কটাক্ষ নীতীশের

Bihar Chief Minister Nitish Kumar addresses an election meeting, at Raghunathpur consistency in Siwan district on October 20, 2020. (PTI Photo)

সামগ্রিক উন্নয়ন নিয়েও আগের সরকারের সঙ্গে নিজের সরকারের তুলনা টানেন নীতীশ কুমার। তিনি বলেন, এখন বিহার হ্যারিকেনের যুগ পেরিয়ে বিদ্যুতের যুগে পৌঁছে গিয়েছে।

  • Share this:

    #‌পটনা:‌ ভোট চলছে বিহারে। প্রথম পর্যায়ের ভোট শেষ হয়েছে। এখন তুঙ্গে রয়েছে প্রচার। সবপক্ষই এখন একে অপরের দিকে তোপ দাগতে ব্যস্ত। কথার ফোয়ারা ছুটছে রোজই নির্বাচনের প্রচার মঞ্চ থেকে। আজ তেমনই এক সভা থেকে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার তোপ দাগলেন লালুপ্রসাদ যাদবের দিকে। এদিন তাঁর মুখে ছিল নারী স্বাধীনতার কথা। লালু জমানায় নারী স্বাধীনতার কী হাল হয়েছিল, এদিন তা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করলেন নীতীশ কুমার।

    এদিন নীতীশ বলেন, ‘ওরা এখনকার কথা বলছে, তখন, মানে আগের আমলে নারী নিরাপত্তার কী অবস্থা ছিল?‌ মহিলাদের হেলাফেলা করা হত, কেউ তাদের ইস্যুর দিকে ফিরেও তাকাতেন না।’‌ সেই সূত্রেই ১৯৯৭ সালে মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন লালুর হাতবাসের কথা টেনে আনেন তিনি। নীতীশ বলেন, ‘‌যখন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে তিনি জেলে গিয়েছিলেন, তখন তাঁর আসনে স্ত্রী (‌রাবড়ি দেবী)‌–কে বসিয়ে গিয়েছিলেন। ব্যাস, এইটুকুই। মহিলাদের জন্য আর কিছু তিনি করেননি।’‌ কার্যক্ষেত্রে ১৯৯৭ সালে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগে লালুপ্রসাদ যাদবকে জেলে যেতে হয়েছিল। সেই সময় মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে তিনি তাঁর স্ত্রীকে বসিয়েছিলেন।

    এর পর নীতীশ নিজে তাঁর আমলে কী করেছেন, তার খতিয়ান তুলে ধরেন। তিনি বলেন, মহিলাদের কাজের সুযোগ দিয়েছে তাঁর সরকার। শহর ও গ্রামের প্রশাসনে মহিলাদের জন্য আলাদা করে সংরক্ষিত আসনের সংখ্যা বেড়েছে। বেড়েছে পিছিয়ে পড়া তফসিলি জাতি ও উপজাতিদের জন্য সংরক্ষিত আসনের সংখ্যাও। তিনি বলেছেন, ‘‌আজ যদি বিহারের কোনও উন্নতি হয়ে থাকে, তাহলে সেটা হয়েছে প্রশাসনে মহিলাদের অংশগ্রহণের কারণে। আর মহিলাদের অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতার প্রশ্নেও এদিন তিনি একাধিক সরকারি প্রকল্পের কথা তুলে ধরেন, যেখানে মেয়েদের আর্থিক নিরাপত্তা দেওয়ার বিষয়ে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

    সামগ্রিক উন্নয়ন নিয়েও আগের সরকারের সঙ্গে নিজের সরকারের তুলনা টানেন নীতীশ কুমার। তিনি বলেন, ‘‌এখন বিহার হ্যারিকেনের যুগ পেরিয়ে বিদ্যুতের যুগে পৌঁছে গিয়েছে। প্রতিটি ঘরে এখন আলো পৌঁছেছে। বিরোধীরা আসলে কোনও কাজ করেননি, করতে চানও না। তাঁরা একেবারে অপদার্থ।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: