corona virus btn
corona virus btn
Loading

মার্সিডিজ, বিএমডব্লিউ নয়, ইনদওরে গরুর গাড়িতেই যাতায়াত করছেন শিল্পপতিরা!

মার্সিডিজ, বিএমডব্লিউ নয়, ইনদওরে গরুর গাড়িতেই যাতায়াত করছেন শিল্পপতিরা!
গরুর গাড়ি বেছে নিয়েছেন শিল্পপতিরা৷

মধ্যপ্রদেশের ইনদওরের পালদায় এমনই ছবি সামনে এল৷ যা নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে৷

  • Share this:

#ইনদওর: মার্সিডিজ, অডি বা বিএমডব্লিউ নয়৷ তার বদলে গরুর গাড়ি৷ তাতে চড়েই নিজের কারখানায় গেলেন এক শিল্পপতি৷ মধ্যপ্রদেশের ইনদওরের পালদায় এমনই ছবি সামনে এল৷ যা নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে৷

কিন্তু কেন হঠাৎ গাড়ি ছেড়ে গরুর গাড়িতে চড়তে গেলেন ওই শিল্পপতি? আসলে

মধ্যপ্রদেশের শিল্প শহর হিসেবে পরিচিত হলেও ইনদওরের পালদায় রাস্তাঘাটের অবস্থা অত্যন্ত খারাপ৷ অভিযোগ, কয়েকদিন বৃষ্টির পর রাস্তার অবস্থা এমনই বেহাল যে সেই পথ দিয়ে গাড়ি নিয়ে চলাচলই দায়৷ ফলে মাঝপথে গাড়ি থেকে নেমেই পালদায় নিজের কারখানায় যাওয়ার জন্য গরুর গাড়িই বেছে নেন ওই শিল্পপতি৷

লকডাউন শেষ হওয়ার পর ইনদওরের পালদার শিল্পাঞ্চলও খুলে গিয়েছে৷ কিন্তু ওই এলাকায় একাধিক বড় কারখানা থাকলেও সেখানকার রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ৷ যার জেরে শুধু শিল্পপতিরাই নন, আমজনতা থেকে শুরু করে অন্যান্য যানবাহনের চালক প্রত্যেকেই তিতিবিরক্ত৷ বর্ষার সময় খানাখন্দ এবং কাদায় ভরা এই রাস্তা দিয়ে চলাচলই দুষ্কর৷ বছরের অন্যান্য সময়ে শিল্পপতিরা নিজেদের দামি গাড়ি চড়ে কারখানায় এলেও বর্ষা হলেই শিল্পাঞ্চলের বাইরে গাড়ি পার্ক করে আসতে বাধ্য হন৷

কয়েকদিন আগে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের জেরে টানা বৃষ্টির ফলে পালদা শিল্পাঞ্চলের অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে৷ যে কারণে নিজেদের গাড়ি শিল্পাঞ্চলের বাইরে রেখে মাল পরিবহণের কাজে ব্যবহৃত গরুর গাড়িতে চড়েই কারখানায় যাতায়াত করতে শুরু করেছেন শিল্পপতিরা৷ কাঁধে ল্যাপটপ ঝুলিয়ে শিল্পপতিদের গরুর গাড়ি চড়ে যেতে দেখে হাসি চেপে রাখতে পারেননি অনেকেই৷

পালদা শিল্প সংগঠনের সচিব হরিশ নাগরের দাবি, দু'- তিন দিন বৃষ্টি হলেই শিল্পাঞ্চলের রাস্তার অবস্থা খারাপ হয়ে যায়৷ ৯ বছর ধরে তাঁরা ওই রাস্তা ঠিক করার দাবি জানাচ্ছেন বলেও দাবি করেছেন হরিশ৷ কিন্তু কাজের কাজ হয়নি৷ বাধ্য হয়েই তাঁদের গরুর গাড়িতে যাতায়াত করতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওই শিল্পপতি৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 8, 2020, 1:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर