corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফুটপাতের আলোয় পড়াশুনা করে মাধ্যমিকে দুর্দান্ত রেজাল্ট, ফ্ল্যাট উপহার পেল দিনমজুর কন্যা ভারতী

ফুটপাতের আলোয় পড়াশুনা করে মাধ্যমিকে দুর্দান্ত রেজাল্ট, ফ্ল্যাট উপহার পেল দিনমজুর কন্যা ভারতী

মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর পুরনিগমের শিবাজী মার্কেট সংলগ্ন ফুটপাতে মা-বাবা, ভাই-বোনের সঙ্গে থাকত ভারতী।

  • Share this:

#ইন্দোর: ভারতী খাণ্ডেরকরের কাছে মাধ্যমিক পাস করাটা ছিল কঠিন চ্যালেঞ্জ। তার ঠিকানা ছিল ফুটপাত। সেই কঠিন চ্যালেঞ্জ উতরে সে এখন ইন্দোরের গর্ব। আর এই প্রাপ্তির ফ্ল্যাট উপহার পেয়েছে সে। ভারতীর স্বপ্ন আইএএস অফিসার হবে সে।

মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর পুরনিগমের শিবাজী মার্কেট সংলগ্ন ফুটপাতে মা-বাবা, ভাই-বোনের সঙ্গে থাকত ভারতী। ফুটপাতে থেকে লেখাপড়া করাটা মোটেই সহজ নয়। দিনরাত বাস, গাড়ির, মানুষের কোলাহল। দিনের বেলা পড়াশুনা করা সম্ভব হত না। তাই রাস্তায় লোক চলাচল কমে গেলে ভারতী পড়তে বসত। সারারাত চলত পড়াশুনা। আর এ বার সে মাধ্যমিকে ৬৮ শতাংশ নম্বর পেয়ে প্রথম বিভাগে পাশ করেছে।

ভারতীর এই প্রাপ্তির সংবাদ পৌঁছয় ইন্দোরের পুরকমিশনারের কাছে। তারপরেই তিনি ভারতীর জন্য একটি ফ্ল্যাটের বন্দোবস্ত করে দেওয়ার নির্দেশ দেন। তাঁর নির্দেশ পাওয়ার পরই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার দায়িত্বে থাকা প্রশান্ত দীঘে ভারতীর জন্য একটি ফ্ল্যাটের ব্যবস্থা করেন।

তবে শুধু ফ্ল্যাট নয়, ভারতী যাতে নিখরচায় পড়াশোনা করতে পারে তার সব ব্যবস্থাও করছে ইন্দোর পুরনিগম। ইতিমধ্যেই ভারতীকে একাদশ শ্রেণীর সমস্ত বই, চেয়ার-টেবিল ও পড়াশুনার অন্যান্য সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। মাধ্যমিক পাসের উপহার স্বরূপ এত বড় প্রাপ্তি আশা করেনি সে। তাই ফ্ল্যাট পেয়ে ভারতী এবং তার মা বাবা সকলেই খুশি। ভারতীর বাবা দশরথ জানিয়েছেন, তিনি ও তাঁর স্ত্রী দু’জনেই দিনমজুরের কাজ করেন। দিনের বেলা ভারতী ছোট ভাইবোনদের দেখাশোনার পাশাপাশি রান্নাও করত। আর সারারাত পড়াশোনা করত। তিনি ও তার স্ত্রী পালা করে রাত্রি জেগে মেয়ের সঙ্গে বসে থাকতেন।

Published by: Shubhagata Dey
First published: July 9, 2020, 8:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर