corona virus btn
corona virus btn
Loading

লোক কম, লকডাউন পরিস্থিতিতে রেলের সম্পত্তি যথাযথ আছে কিনা জানতে ড্রোনের সাহায্য নিচ্ছে রেল

লোক কম, লকডাউন পরিস্থিতিতে রেলের সম্পত্তি যথাযথ আছে কিনা জানতে ড্রোনের সাহায্য নিচ্ছে রেল
Indian Railways to use drone
  • Share this:

#কলকাতা: ড্রোনের চাহিদা বাড়ল ভারতীয় রেলে। রেলের সম্পত্তি দেখভালের জন্য ব্যবহার বাড়ছে ড্রোনের। এর আগেই রেল মন্ত্রক ড্রোনের মাধ্যমে প্রকল্পের কাজ কতদূর এগোল তা বারবার নজর করে। এবার লকডাউন পরিস্থিতিতে রেলের সম্পত্তি যথাযথ আছে কিনা তাতে নজরদারি করতে সাহায্য নেওয়া হচ্ছে সেই ড্রোনের।

ইতিমধ্যেই ইস্ট কোস্ট রেলওয়ে ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি শুরু করে দিয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রেলের বাকি ডিভিশনগুলিও এই পন্থা অবলম্বন করতে চলেছে। যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল গোটা দেশজুড়ে বন্ধ হয়েছে। শুধুমাত্র রেলের কর্মী এবং আধিকারিকদের কাজের জন্য বিশেষ ট্রেন চলছে। আর চলছে পণ্যবাহী ট্রেন। যদিও এই গোটা রেলওয়ে অপারেশন চলছে মাত্র অল্প কয়েকজনকে দিয়েই। যদিও লকডাউন উঠে গেলেই ফের স্বাভাবিক হয়ে যাবে রেল চলাচল। ফলে রেলের লাইন, স্টেশন এমনকি বিভিন্ন কারশেডে যেখানে একাধিক ট্রেন দাঁড়িয়ে আছে তা প্রতিনিয়ত নজরদারি করা হচ্ছে। কিন্তু ১০০ জনের কাজ মাত্র ১৫ জনের মাধ্যমে করা বা নজরদারি করা তা সম্ভব নয়। সেই জন্যই সাহায্য নেওয়া হয়েছে ড্রোনের।

ইস্ট কোস্ট রেলওয়ে সূত্রে খবর, যাত্রীবাহী কামরা, ওয়াগন সহ রেলের সম্পত্তি প্রতিদিন এখন নজরদারি করা হচ্ছে এই ড্রোন দিয়েই। ইস্ট কোস্ট রেলওয়ে সদর দফতর হচ্ছে ভুবনেশ্বরে। এই জোনের বেশিরভাগই হচ্ছে মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকা। মাঝে মধ্যেই নানা ধরণের সমস্যা হয় এখানে। সেই কারণে এই এলাকায় বেশি করে নজরদারি থাকে। ইস্ট কোস্ট রেলওয়ের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক জানান, "যে উচ্চতা থেকে ড্রোন ওড়ানো হচ্ছে তাতে সবটাই নজর রাখা সম্ভব হচ্ছে। কোনও কিছু নজরে আসলে আমরা আর পি এফের কন্ট্রোল রুমে জানিয়ে দিচ্ছি।"

পূর্ব ও দক্ষিণ পূর্ব রেলের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন তাদের জোনেও একাধিক ডিভিশন আছে যেগুলিতে এই লকডাউন পরিস্থিতিতে সারাক্ষণ ধরে নজরদারি করা সম্ভব নয়। এখন অত্যন্ত কম কর্মী দিয়েই সমস্ত কাজ করানো হচ্ছে। পায়ে হেঁটে এখন এতটা পথ দেখা সম্ভব নয় তাই ড্রোনে ওড়ানো অন্যতম পন্থা বলে মত রেল আধিকারিকদের। হাওড়া, শিয়ালদহ, আসানসোল, মালদা, আদ্রা, খড়গপুর, রাঁচি সহ একাধিক ডিভিশনে রেল রক্ষী বাহিনী তারা যেমন স্টেশনে নজরদারি করছেন ঠিক তেমনি সম্পত্তি দেখভালের কাজও করছেন। এই কাজে এবার তাদের সাহায্য করবে ড্রোন।

Published by: Pooja Basu
First published: April 9, 2020, 10:19 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर