চিন, পাকিস্তানের মোকাবিলায় বিশেষ পাহাড়ি যোদ্ধা তৈরি করছে ভারত

চিন, পাকিস্তানের মোকাবিলায় বিশেষ পাহাড়ি যোদ্ধা তৈরি করছে ভারত
গুলমার্গ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিশেষ ট্রেনিং ভারতীয় সেনার photo/ANI

এইচওএস এক বছরে কমপক্ষে ৫৪০ জন সৈন্যকে প্রশিক্ষণ দেয়। এই প্রশিক্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে সামরিক স্কিইংয়ের ওপর, যা পোস্ট-মুভমেন্ট এবং তুষারমুখী এলাকায় টহল দিতে সাহায্য করে।

  • Share this:

    #শ্রীনগর: পশ্চিমে পাকিস্তান এবং উত্তরপ্রান্তে চিন। শেষ কয়েক মাস দুই শত্রু দেশের সঙ্গে টেনশন অনেকটাই বেড়েছে ভারতের। লাদাখে নয় মাস স্ট্যান্ড অফ। চিন সেনা সরানো শুরু করলেও তাঁদের ভরসা করা যায় না। চিনের বিরুদ্ধে চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে রয়েছে ভারতীয় সেনা। অন্যদিকে পাকিস্তান প্রতিদিন জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এই দুটি দেশের সঙ্গে ভারতের কয়েক হাজার কিলোমিটার সীমান্ত, যার অনেকটা জুড়েই রয়েছে পাহাড়ি দুর্গম এলাকা। আগে বেশ কয়েকবার পাহাড়ি যুদ্ধের কথা মাথায় রেখে বিশেষ মাউন্টেন কোর তৈরির প্রস্তাব আনা হলেও তা কার্যকর হয়নি। কিন্তু সম্প্রতি গুলমার্গ হাই অল্টিটিউড ট্রেনিং স্কুলে বিশেষ ধরনের প্রস্তুতি ব্যবস্থা করেছে ভারতীয় সেনা।

    সেনা কর্মকর্তাদের মতে, চ্যালেঞ্জিং তুষারভূমিতে সফল উদ্ধার অভিযানের জন্য সৈন্যদের সর্বশেষ আকৃতির সরঞ্জাম দিয়ে নতুন কৌশল প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। অত্যন্ত কঠোর আবহাওয়ায় মসৃণ অপারেশন নিশ্চিত করতে সৈন্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এখন পর্যন্ত এইচওএস-এ দুটি কোর্স প্রদান করা হয়, একটি হচ্ছে শীতকালীন যুদ্ধ সিরিজ, যার অধীনে মৌলিক এবং উন্নত কোর্স প্রদান করা হয়। এছাড়া মৌলিক এবং উন্নত কোর্স অন্তর্ভুক্ত।

    এইচওএস এক বছরে কমপক্ষে ৫৪০ জন সৈন্যকে প্রশিক্ষণ দেয়। এই প্রশিক্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে সামরিক স্কিইংয়ের ওপর, যা পোস্ট-মুভমেন্ট এবং তুষারমুখী এলাকায় টহল দিতে সাহায্য করে। পিঠে ২০ কেজি ওজন নিয়ে স্কি করার প্রশিক্ষণ দেওযা হয়। দেওয়া হয় ৮০ ডিগ্রি ঢাল বেয়ে চলাচল করার প্রশিক্ষণও। এর ফলে যতই তুষারপাত হোক না কেন তাদের যে কোনো এলাকা পর্যবেক্ষণ করতে সমস্যা হবে না। কয়েক মাস আগে চিনা সেনার তরফ থেকে একটি রিপোর্টে বলা হয়েছিল বিশ্বের সবথেকে উন্নত পাহাড়ি যোদ্ধা রয়েছে ভারতের হাতে।


    কঠিন পরিস্থিতিতেও গোপন অপারেশন করতে সিদ্ধহস্ত এই বাহিনী। চিন মূলত এই পাহাড়ি যোদ্ধাদের কথা মাথায় রেখেই বেশি বাড়াবাড়ি করার সাহস দেখায়নি। হবে সেটা অত্যন্ত গোপন রেখেছে ভারতীয় সেনা। এই বাহিনীতে ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা সেনা যেমন রয়েছে, তেমনই তিব্বতি রয়েছে প্রচুর সংখ্যায়। পাহাড়ের সঙ্গে বিশেষ সখ্যতা থাকায় তিব্বতি সেনাদের আলাদা গুরুত্ব দেওয়া হয়।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: