নিখোঁজ বিমানের সন্ধানে মার্কিনি সাহায্য চাইল ভারত

নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বায়ুসেনার বিমান AN32-এর কোনও খোঁজ না পেয়ে আমেরিকার দ্বারস্থ হয়েছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷

নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বায়ুসেনার বিমান AN32-এর কোনও খোঁজ না পেয়ে আমেরিকার দ্বারস্থ হয়েছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: নিরুদ্দেশ হওয়ার আটদিন পরেও বায়ুসেনার বিমান AN32-এর কোনও খোঁজ না পেয়ে আমেরিকার দ্বারস্থ হয়েছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷ লাগাতার সার্চ অপারেশন চালিয়েও কোনও হদিশ না পেয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মনোহর পারিক্কর শুক্রবার পার্লামেন্টে জানান, বিমানটির সন্ধান পেতে আমেরিকার সাহায্য চেয়েছে কেন্দ্র ৷ আমেরিকার কাছে অনুরোধ করা হয়েছে, তাদের প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপগ্রহে নিখোঁজ হওয়া AN32 বিমানের কোনও সিগন্যাল ধরা পড়লে সে সম্পর্কে তথ্য চাওয়া হয়েছে ৷

    গত ২২ তারিখ চেন্নাইয়ের তাম্বারাম থেকে পোর্ট ব্লেয়ার যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়ে যায় বায়ুসেনার এএন-৩২ বিমানটি ৷ ওই বিমানে ছিলেন ২৯ জন যাত্রী ও ৬ জন বিমানকর্মী ৷

    প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী আগেই জানিয়েছিলেন, চেন্নাই থেকে ২৭০ কিমি দূরে বিমানটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ৷ এদিন মনোহর পারিক্কর বলেন, বিমানটির সঙ্গে সংযোগ শেষবারের মতো ছিন্ন হওয়ার আগে বিমানটি প্যাসিভ রাডারে ছিল ৷ বিমানটি থেকে ATC কোনও SOS বা কোনও অন্যরকম বার্তা পায়নি ৷ এই ব্যাপারটিই ভাবাচ্ছে তদন্তকারীদের ৷ কিভাবে হাওয়ায় মিলিয়ে যেতে পারে একটি বিমান!

    নাশকতার সম্ভাবনা আগেই নাকচ করেছে তদন্তকারীরা ৷ বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার সবরকম সম্ভাবনা খতিয়ে দেখার পরও কোনও দিশা না পেয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তরের উপগ্রহ চিত্রের শরণাপন্ন হয়েছে কেন্দ্র ৷ অভিজ্ঞ বায়ুসেনা বিমান চালক ও প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধানরাও বুঝে উঠতে পারছেন না কোনও সংকেত ছাড়াই কিভাবে বিমানটি নিরুদ্দেশ হয়ে গেল ৷ সাগরের উপর দুর্ঘটনায় ভেঙে পড়লেও তাঁর ধ্বংসাবশেষের কোনও চিহ্নও এতদিনে কেনও দেখা গেল না তাও ভাবাচ্ছে তদন্তকারীদের ৷

    বিমানটির সন্ধান পেতে কোনও কমতি রাখেনি প্রতিরক্ষা দপ্তর ৷ সিন্ধুধ্বজ সাবমেরিন ও নৌসেনার ১০ টি জাহাজ গোটা বঙ্গোপসাগরে তল্লাশি চালিয়েও মেলেনি কোনও সূত্র ৷ নিখোঁজ বিমানটির সন্ধানে P8I ও একটি ডর্নিয়ার বিমানও পাঠানো হয়েছিল ৷

    ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে এরকম আরও ১০০টি বিমান রয়েছে ৷ নতুন করে জ্বালানি না ভরে প্রায় অতিরিক্ত চার ঘণ্টা পর্যন্ত উড়তে পারে বিমানটি ৷

    বিমানটিতে একটি জরুরি আলো রয়েছে ৷ কোনও কারণে বিমান ভেঙে পড়লে সেটি বিমানের ধ্বংসাবশেষের খোঁজ করতে সাহায্য করে ৷

    ট্যুইন ইঞ্জিন টার্বোপ্রপ বিমান AN-32 রাশিয়ার তৈরি মালবাহী বিমানটি। সম্প্রতি ইউক্রেনের সাহায্যে AN-32 বিমানগুলির আধুনিকীকরণ করা হয়। একটানা ৪ ঘণ্টা উড়তে পারে AN-32। সবরকম আবহাওয়াতেই ওড়ার ক্ষমতা রয়েছে। দূর্গম এলাকায় পণ্য সরবরাহে কাজে লাগানো হয় AN-32 বিমানকে। এর আগেও ৯ বার দুর্ঘটনায় পড়েছে AN-32। ২২ তারিখ থেকে নিরুদ্দেশ বায়ুসেনার AN-32 বিমানটির সঙ্গে বছর দুয়েক আগে বেজিংয়ের আকাশ থেকে নিখোঁজ মালেশিয়ার এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৩৭০-এর কেসের কিছু মিল রয়েছে ৷ ২৩৯ জন মানুষকে নিয়ে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সেই বিমানটির খোঁজ আজও মেলেনি ৷

    First published: