দ্বিতীয় ঢেউয়ে টালমাটাল দেশ! ১দিনে প্রায় ৪৮ হাজার আক্রান্ত নিয়ে সব রেকর্ড ভাঙল করোনা

দ্বিতীয় ঢেউয়ে টালমাটাল দেশ! ১দিনে প্রায় ৪৮ হাজার আক্রান্ত নিয়ে সব রেকর্ড ভাঙল করোনা

জনবহুল এলাকা বিশেষ করে বাজার ও শপিং মলে চলবে কড়া নজরদারি, করোনা সতর্কতাবিধি না মানলেই নেওয়া হবে কড়া ব্যবস্থা! পাশাপাশি, যে-সমস্ত বেসরকারি বাসে বেশি ভিড় হয়ম সেই সমস্ত বাস স্ট্যান্ডের বাইরেও কোভিড পরীক্ষা করা হবে। সমস্ত জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের কঠোরভাবে নির্দেশিকা অনুসরণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যে সমস্ত রাজ্যে করোনার প্রকোট বেশি, সেখান থেকে আসা যাত্রীদেরও যথেচ্ছভাবে করোনা পরীক্ষা করা হবে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশজুড়ে করোনা রোগী ধরা পড়েছেন ৪৭ হাজার ৯ জন। গত চার মাসে সর্বোচ্চ একদিনে আক্রান্ত।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: গত বছরও ঠিক এই সময় থেকেই ভারতে ভয়াবহ রূপ নিতে শুরু করেছিল করোনাভাইরাস। ২০২১-এও ফের একই রকম ভয়াবহতার পথে হাঁটতে শুরু করেছে কোভিড ১৯-এর দাপট। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশজুড়ে করোনা রোগী ধরা পড়েছেন ৪৭ হাজার ৯ জন। গত চার মাসে সর্বোচ্চ একদিনে আক্রান্ত। পঞ্জাব, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ ও তামিলনাড়ুতে ফের জোরদার করা হয়েছে করোনাবিধি। স্কুল বন্ধ, জনবহুল এলাকায় বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কোনও কোনও জেলায় ফের নাইট কারফিউ চালু করা হয়েছে।

    সবচেয়ে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত রাজ্য হল মহারাষ্ট্র । নতুন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এখানে ৩০,৫৩৫ জন । প্রথম পাঁচটি করোনা বিধ্বস্ত রাজ্যের মধ্যে মহারাষ্ট্রের পরেই আছে কেরল । মহারাষ্ট্রে মোট করোনা আক্রান্ত ২,৪৭৯,৬৮২ জন । কেরলে ১,১০২,৩৫২ জন । কর্নাটকে ৯৬৮,৪৮৭জন । অন্ধ্র প্রদেশে ৮৯৩,৩৬৬ জন এূং তামিলনাড়ুতে ৮৬৫,৬৯৩ জন ।

    গত বছরের শেষের দিক থেকে করোনার সংক্রমণ দেশে অনেকটাই কমতে শুরু করেছিল। দেশে টিকাকরণ শুরু হয়েছিল। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ফের বাড়তে শুরু করেছে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন ভারতে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ ধীরে ধীরে ছড়াচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্য বলছে, রবিবার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪ হাজারের কাছে ছিল, যা গত ৪ মাসে সর্বাধিক।

    তবে দৈনিক সংক্রমণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশে টিকাকরণের সংখ্যাও বেড়েছে। এখনও পর্যন্ত ভারতে মোট ৪ কোটি ৪৬ লক্ষ ৩ হাজার ৮৪১ জনকে কোভিড টিকা দেওয়া হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫ লক্ষ ৪০ হাজার ৪৪৯ জন টিকা নিয়েছেন বলেই স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে।

    Published by:Simli Raha
    First published: