corona virus btn
corona virus btn
Loading

ইরান-মার্কিন সম্পর্কে নাটকীয় মোড়ের পর চিন্তিত ভারত, ফোনে কথা তেহরানের সঙ্গে

ইরান-মার্কিন সম্পর্কে নাটকীয় মোড়ের পর চিন্তিত ভারত, ফোনে কথা তেহরানের সঙ্গে
Photo- PTI

পশ্চিম এশিয়ায় প্রায় ৮০ লক্ষ ভারতীয় বসবাস করছেন ও কাজ করছেন, তার একটা বড় অংশ আরব উপসাগরে, এই গণ্ডগোলের জেরে তারা বিপদে পড়বেন, কেরল থেকে যাঁরা সেখানে গেছেন তাঁদের ফিরিয়ে আনার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি :  মার্কিন ও ইরান উত্তেজনা শুরু হয়েছে ইরানের মিলিটারি প্রধান কাসেম সুলেমানির মৃত্যুর পর ৷ বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানিয়েছেন ইরানের প্রতিনিধির সঙ্গে কথা হয়েছে ৷ আরব ও তার আশপাশের দেশে যেভাবে উত্তেজনার আগুন ছড়িয়েছে তার কথা মাথায় রেখে দারুণ চিন্তিত ভারত ৷ আর তাই কথা বলা হয়েছে ইরানের জাভেদ জারিফের সঙ্গে ৷

 সেখানে কীভাবে ঘটনাক্রম এগোচ্ছে তার ওপর নজর রাখা হচ্ছে ৷ বিদেশমন্ত্রকের মন্ত্রী ট্যুইট করে জানিয়েছেন, ‘বিদেশমন্ত্রী জাভেদ জারিফের সঙ্গে এই মাত্র কথা হল ৷ কারণ ঘটনাক্রম খুবই গুরুতর দিকে এগোচ্ছে ৷ যে পরিমাণে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে তা নিয়ে ভারত খুবই চিন্তিত ৷ আমরা যোগাযোগ রাখব এই মর্মে সহমত হয়েছি ৷ ’

 
 

ইরানের সামরিক বাহিনীর প্রধান সুলেমানির মৃত্যুর পরেই দুই নেতার মধ্যে কথা হয় ৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হামলার ফলেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে ৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দিয়েছেন ইরানে তাঁরা ৫২ টি টার্গেট তৈরি রেখেছেন ৷ তেহরান মার্কিন হামলার পাল্টা প্রতিশোধের দেওয়ার কথা বলে সুর চ়ড়ানোর পরেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান এই হুমকি দেন ৷

আরও পড়ুন - Ind vs SL: ফের শুরু! মাঠ ঢাকছে কভারে, প্রথম টি টোয়েন্টি ঘিরে বৃষ্টির ভ্রূকূটি

ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ড কোরের গুপ্ত বাহিনী কুদস। বিদেশের মাটিতে ইরানপন্থী ভাড়াটে সেনাদের পরিচালনা করাই যার মূল কাজ। এই বাহিনীরই প্রধান ছিলেন কাসেম সুলেমানি। মার্কিন ড্রোন হামলায় তাঁর মৃত্যু হয় যখন তিনি শুক্রবার বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে যাচ্ছিলেন ৷ ইরানের প্যারামিলিটারি বাহিনীর উপপ্রধান হাসিদ আল সাহাবিও এই হামলায় মারা যান ৷ মার্কিন ও ইরান সম্পর্কের নাটকীয় পটপরিবর্তনের পথে এই হত্যা ৷

এদিকে ভারতের অর্থনীতির জন্যেও এই ঘটনাক্রমে নজর রাখা খুবই গুরুত্বপূ্র্ণ৷ অর্থবর্ষে যে ঘাটতি আছে তা মেটানোর যে চেষ্টা চলছে তাতে এই পদক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ মোড় নেওয়াবে ৷

আরও দেখুন

First published: January 5, 2020, 8:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर