লোকসভা ভোটের আগে কর্নাটকে প্রভাবশালীদের ঘরে আয়কর হানা

লোকসভা ভোটের আগে কর্নাটকে প্রভাবশালীদের ঘরে আয়কর হানা
photo: Representational Image
  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: ৪ ঘণ্টায় কর্নাটকের ১৯ জায়গায় আয়কর হানা। রাজ্য মন্ত্রিসভার সদস্য, মন্ত্রীর আত্মীয়, শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, খনিমালিক সহ কয়েকটি আবাসনেও অভিযান চালাল আয়কর দফতর।  কেন্দ্রের দিকে আঙুল তুলে একযোগে ধর্নায় নেমে পড়েন কুমারস্বামী, সিদ্দারামাইয়া সহ শাসকদলের নেতারা।

ক্ষুদ্র সেচমন্ত্রী সিএস পুট্টারাজুর বাড়িতে অভিযান চালায় আয়কর দফতর৷ পুট্টারাজুর ভাইপোর বাড়িতেও আয়কর হানা৷ মুখ্যমন্ত্রীর ভাই ও পূর্তমন্ত্রী রেভান্না ঘনিষ্ঠদের বাড়ি ও অফিসে তল্লাশি চালায় আয়কর দফতর৷ আয়কর হানার পরপরই একযোগে বিক্ষোভ দেখাতে নেমে পড়ে কংগ্রেস ও জেডিএস। টুইটে প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী।

ভোটের আগে আয়কর দফতরকে ব্যবহার করে মোদির সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। অত্যন্ত উদ্বেগজনক ঘটনা। দুর্নীতিগ্রস্ত অফিসারদের ব্যবহার করে মোদি-বিরোধীদের হেনস্থা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার কর্নাটকের বিভিন্ন প্রান্তে উদ্ধার  হয় সাড়ে তিন কোটি টাকা। বুধবার বেশ কয়েকজন জেডিএস নেতার বাড়িতে অভিযান চলে। তখনই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত ধরণায় বসে প্রতিবাদের হুমকি দেন কুমারস্বামী। যদিও আয়কর দফতরের দাবি, নির্দিষ্ট খবরের ভিত্তিতেই এই অভিযান। খনিমালিক, চলচ্চিত্র প্রযোজক, রফতানিকারী, আমলাদের বাড়িতে তল্লাশি চলেছে৷

মান্ডিয়া, সাহারু সহ যেখানে তল্লাশি চলেছে, সেই কেন্দ্রগুলিতে ভোটে দাঁড়াচ্ছেন কুমারস্বামীর ছেলে, ভায়রাভাই। দুটি কেন্দ্রেই জেডিএসের তরফে ভোটের দায়িত্বে পুট্টারাজু। এই তথ্য তুলে ধরেই একযোগে নরেন্দ্র মোদিকে নিশানা জেডিএস - কংগ্রেস জোটের।

First published: 08:10:49 PM Mar 28, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर