এক নয়, দুই নয়, একসঙ্গে পুলিশের জালে ৫৭ জন ভুয়ো ডাক্তার !

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Feb 09, 2019 10:19 AM IST
এক নয়, দুই নয়, একসঙ্গে পুলিশের জালে ৫৭ জন ভুয়ো ডাক্তার !
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Feb 09, 2019 10:19 AM IST

#মুম্বই : ভয়ানক, দুর্বিষহ সব কিছু বলেলই কম বলা হয় ৷ শিউড়ে ওঠার মতো ঘটনা ৷ এক দু‘জন নয় ৫৭ জন চিকিৎসক মিথ্যে সার্টিফিকেট দিয়ে চালাচ্ছিলেন ডাক্তারি ৷

এঁরা প্রত্যেকেই একই মেডিকেল কলেজের পাস আউট হিসেবে দাবি করেছিলেন , কাউন্সিলের থেকে রেজিস্ট্রেশন পাওয়ার জন্য ৷ ভুয়ো ডাক্তারদের থেকে প্র্যাকটিশ করার লাইসেন্স কেড়ে নেওয়া হয়েছে ৷ দায়ের করা হয়েছে এফআইআর ৷ এঁদের প্রত্যেকেরই ডিগ্রি ছিল কলেজ অফ ফিজিশিয়ান অ্যান্ড সার্জেনের ৷ পাশাপাশি প্রত্যেকেই ২০১৪-১৫-র পাস আউট ৷

এই ঘটনায় এই কলেজেরই েক প্রাক্তন ছাত্রকে গ্রেফতার করা হয়েছে , যে  টাকার বিনিময়ে পড়ুয়াদের মিথ্যে ডিগ্রি দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিত ৷

 মুম্বইয়ের এই ঘটনায় শিউড়ে উঠছে গোটা ভারত ৷ তদন্তে উঠে এসেছে ডক্টর সেনহাল নায়াতি প্রত্যেক ছাত্রের থেকে ৩ থেকে ৫ লক্ষ টাকা নিতেন ৷ এর প্রেক্ষিতে তাঁদের দেওয়া হত মেডিকেল কলেজের থেকে ডিগ্রি ৷ এমনকি ডাক্তারি পরীক্ষায় ফেল করলেও ডিগ্রি পাওয়া থেকে বঞ্চিত হতেন না তাঁরা ৷

এই মিথ্যে ডিগ্রি দেখিয়ে  MMC থেকে লাইসেন্স পেতেন এই ভুয়ো চিকিৎসকরা ৷ যার সাহায্যে গোটা মহারাষ্ট্রে তাঁরা চিকিৎসা করার অনুমতি পেয়ে যতেন সহজেই ৷

Loading...

আরও পড়ুন - সরস্বতী পুজোর প্রস্তুতি জোরকদমে, কেমন চলছে ফল ও সব্জির বাজার দর

এই ঘটনা প্রথম সামনে আসে ২০১৬ সালে ৷ জলগাঁও জেলার মহারাষ্ট্র পুলিশ প্রথম রিপোর্ট করে সিপিএস-কে ৷ তাঁরা একটি স্টুডেন্টের ডিগ্রি পরীক্ষা করার জন্য তাদেরকে পাঠায় ৷ এরপর থেকেই খুলতে খুলতে থাকে একের পর এক মুখোশ ৷ কলেজ অফ ফিজিশিয়ান অ্যান্ড সার্জেনের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় এই ডিগ্রি তাদের দেওয়া নয় ৷

তদন্তে উঠে আসে ২০১৪-১৫ তে জমা দেওয়া ৭৮ টি সার্টিফিকেট জাল ৷

First published: 10:19:39 AM Feb 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर