নিজের কেন্দ্রে সভা, ডাক পেলেন না মিহির গোস্বামীই! প্রকাশ্যে বিজেপির আদি নব্য দ্বন্দ্ব

নিজের কেন্দ্রে সভা, ডাক পেলেন না মিহির গোস্বামীই! প্রকাশ্যে বিজেপির আদি নব্য দ্বন্দ্ব
ক্ষুব্ধ মিহির গোস্বামী।

মিহির গোস্বামীর দাবি, দল তার সঙ্গে এই নিয়ে ঠিক ভাবে কথাবার্তাই বলেনি।

  • Share this:

#কোচবিহার: তাঁর কেন্দ্রে সভা। অথচ তিনিই অনুপস্থিত। হ্যাঁ, কোচবিহারে শাহী মঞ্চে দেখাই গেল না সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসা বিধায়ক মিহির গোস্বামীকে। লুকনো রইল না ক্ষোভও। বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্বের ছবিটা ঝুলি থেকে বেরিয়ে পড়লই।

মিহির গোস্বামীর দাবি, দল তাঁর সঙ্গে এই নিয়ে ঠিক ভাবে কথাবার্তাই বলেনি। যথেষ্ট ক্ষুব্ধ মিহিরকে চিৎকার করতেও দেখা যায়। পরে বুঝিয়েসুঝিয়ে তাকে শাহী মঞ্চের কাছে নিয়ে আসেন আয়োজকরা। কিন্তু ততক্ষণে সভা শুরু হয়ে গিয়েছে। মিহির আর মঞ্চে ওঠেননি।

খবর যায় অমিত শাহের কানেও। ক্ষোভপ্রশমনে মাঠে নামেন তিনি।মিহিরকে পাশে রেখেই প্রেস কনফারেন্স করেন অমিত শাহ। তিনি যে গুরুত্বপূর্ণ তা বোঝাতে চেষ্টার কসুর করেনি শাহ। মিহিরও এই দমচাপা পরিস্থিতির নিষ্পত্তিতে এক পা এগোন। সব মিটে যাওয়ার পর  বলেন, একটা কমিউনিকেশান গ্যাপ হয়ে গিয়েছে।


মিহির গোস্বামীকে নিয়েই সাংবাদিকদের মুখোমুখি অমিত শাহ। মিহির গোস্বামীকে নিয়েই সাংবাদিকদের মুখোমুখি অমিত শাহ।

বাংলাদখল করতে চাই উত্তরের মন। বিলক্ষণ জানে অমিত শাহ। সেই কারণেই শাহ আজ বলছিলেন,  চা শ্রমিকদের বলছি আপনাদের সব সমস্যা এর সমাধান করবে বিজেপি সরকার। শাহ আরও বলেন, উত্তরবঙ্গে এমন পর্যটন কেন্দ্র করব যাতে দেশ থেকে লোকজন এসে ।কিন্তু শত চেষ্টাতেও তালটা কাটলই। এড়ানো গেল না আদি নব্য সংঘাত। আগামী দিনে এই সংঘাত আর অস্বস্তি এড়ানোই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বিজেপির।

Published by:Arka Deb
First published: