corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমি কোনও ছিঁচকে চোর নই, পুলিশকে বললেন শশীকলা

আমি কোনও ছিঁচকে চোর নই, পুলিশকে বললেন শশীকলা

পোয়েজ গার্ডেনের বিলাসবহুল ঘরে রাত কাটানো আপাতত অতীত। বেঙ্গালেরু সেন্ট্রাল জেলের সেলই এখন শশীকলা নটরাজনের স্থায়ী আস্তানা।

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: পোয়েজ গার্ডেনের বিলাসবহুল ঘরে রাত কাটানো আপাতত অতীত। বেঙ্গালেরু সেন্ট্রাল জেলের সেলই এখন শশীকলা নটরাজনের স্থায়ী আস্তানা। বুধবার সকালেই মরিয়া একটা চাল দিয়েছিলেন চিন্মাম্মা। তারপরই আম্মার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে বেঙ্গালুরুর উদ্দেশ্যে রওনা দেন। আপাতত কিছুদিন বেঙ্গালেরু সেন্ট্রাল জেলই শশীকলার ঠিকানা। পরিস্থিতি দেখে এখনই সুপ্রিম কোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে যাওয়ার কথা ভাবছে না শশীকলা শিবির। এখনই সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে খুব একটা লাভ হবে না। এব্যাপারে একমত আইন বিশেষজ্ঞরা। তবে এটাই প্রথমবার নয় ৷ নব্বইয়ের দশকে তিনি তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার সঙ্গে জেল খাটেন। সেই সুবাদে তাঁকেও ‘‌ভিআইপি’‌ সুবিধা দেওয়া হয়। কিন্তু এবার  বিশেষ সুবিধার আর্জি জানালে তা খারিজ করে সাধারণ সেলেই ঠাঁই হয় শশীকলার ৷

কিন্তু পুলিশের জিপে বসে জেলে ঢুকতে নারাজ চিন্নাম্মা ৷ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে পুলিশ আধিকারিকদের যে তিনি কোনও ছিঁচকে চোর নন ৷ তাই খোলা জিপে তিনি জেলে যাবেন ৷ তার চেয়ে বরং তিনি হেঁটে যাবেন ৷ দূরত্ব যতই হোক না কেন ৷ এবং শেষ অবধি পুলিশের কথা না শুনে হেঁটেই জেলে যান তিনি ৷ তার শরীরী ভাষা থেকে এটা স্পষেট ছিল যে তিনি অত্যন্ত হতাশ ও ক্ষুব্ধ ৷ তিনি বিশেষ বন্দির তকমা চাইলেও তা খারিজ করে দেওয়া হয়েছে ৷ বেঙ্গালেরুর জেলে বসে অনেক অস্বস্তি তাড়া করছে চিন্মাম্মাকে। তারই মধ্যে সামান্য একটু স্বস্তি বলতে পালানিসামি। নিজের অনুগতকে ক্ষমতার রাশ দিয়ে এসেছেন। জেলের ভিতর থেকে সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করার মতো ক্যারিশমা শশীকলার আছে তো?

First published: February 17, 2017, 7:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर