corona virus btn
corona virus btn
Loading

সৎকারের দু’‌দিন পরে ফিরে এলেন ‘‌মৃত’‌, দরজায় এসে বললেন ‘‌আমি বেঁচে আছি’‌

সৎকারের দু’‌দিন পরে ফিরে এলেন ‘‌মৃত’‌, দরজায় এসে বললেন ‘‌আমি বেঁচে আছি’‌
প্রতীকী ছবি

কিন্তু মুশকিল হল, তাহলে আসল দেহটি কার?‌ কার দেহ নিজের পরিবারের লোক ভেবে সৎকার করলেন ওঁরা।

  • Share this:

#‌কানপুর:‌ আহমেদ হাসান। দু’‌দিন আগেও বাড়ির লোক জানতেন তাঁর মৃত্যু হয়েছে। সৎকার করা‌ও হয়ে গিয়েছিল দেহ। কিন্তু সব করে পরিবারের লোক বাড়ি ফিরে আসার পর ফিরে এলেন ‘‌মৃত’‌ আহমেদ হাসান। দেখে একেবারে ভিরমি খাওয়ার জোগাড় হয়েছে পরিবারের লোকেদের।

কানপুরের কর্নেলগঞ্জের এই অদ্ভুত ঘটনাটি রটে গিয়েছে সারা দেশে। চাকেরি থানায় নাগমা মানে এক মহিলা তাঁর স্বামীর নামে নিখোঁজ ডায়েরি করেন। তার দু’‌দিন আগে (‌২ অগাস্ট) তাঁদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হওয়ায় তাঁর স্বামী বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছেন। ৫ অগাস্ট পুলিশ একটি মৃতদেহ শনাক্ত করার জন্য ওই পরিবারকে তলব করেন। আহমেদ হাসানের ভাই মৃতদেহটি তাঁর দাদার বলে শনাক্ত করেন। তারপর ওইদিনই সৎকারও হয়ে যায় সেই দেহের। তারপরে দু’‌দিন পরে ৭ তারিখ হাসান ফিরে আসেন। বাড়ি ফিরে দেখেন, বাড়িতে তালা দেওয়া। প্রতিবেশীরা তাঁকে চিনতে পেরে পুলিশের কাছে নিয়ে যান। পুলিশের কাছে গিয়ে তিনি জানান, ‘‌আমার স্ত্রীয়ের সঙ্গে আমার ঝামেলা হয়েছিল। বাড়ি ছেড়ে দিয়েছিলাম। রাস্তায় একজন লোকের সাহায্যে একটি কারখানায় কাজের সুযোগ পাই। দু’‌দিন পরেই কাজের জন্য টাকা পাই। সেটা নিয়ে বাড়ি ফিরি। দেখি বাড়ি তালা দেওয়া। প্রতিবেশীরা আমায় চিনতে পারেন। আমি জানলাম যে আমাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়ে গিয়েছে। আমি ভেবে একটি মৃতদেহের সৎকারও করা হয়েছে।’ পরে নাগমা তাঁর বয়ানে বলেন, ‘‌ছোট্ট একটি কারণে আমাদের ঝগড়া হয়। তিনি রেগে গিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যান। দু’‌দিন পরেও না ফিরলে পুলিশে রিপোর্ট করি আমরা। একটি মৃতদেহ শনাক্ত করতে দেওয়া হয়। আমার স্বামীর সঙ্গে মুখের মিল ছিল সেই ব্যক্তির। যদিও আমার খানিক সন্দেহ হচ্ছিল। কিন্তু আমার স্বামীর ভাই নিশ্চিত করে জানান যে ওটি তাঁরই দেহ। কিন্তু এখন যখন দেখলাম, তিনি বেঁচে আছেন, আমরা সবাই খুব খুশি।’

কিন্তু মুশকিল হল, তাহলে আসল দেহটি কার?‌ কার দেহ নিজের পরিবারের লোক ভেবে সৎকার করলেন ওঁরা। পুলিশেরও মনে হচ্ছে, সেটাই এখন মূল চ্যালেঞ্জ। অন্য কারওর পরিবারের লোককে নিজের পরিবারের লোক ভেবে দাহ করে দিয়েছেন এঁরা। এবার শনাক্ত করতে হবে, আসলে যাঁর দেহ দাহ করা হল, তাঁর পরিচয় কী!‌

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: August 10, 2020, 12:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर