• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • HYDERABAD MAN IS FINALLY A MATRIC PASS AFTER MASS PROMOTION DUE TO COVID 19 AFTER 33 TIMES IN TELENGANA SDG

করোনা আশীর্বাদ! ৩৩ বারে মাধ্যমিক 'বিজয়ী' নুরউদ্দিনের কীর্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

৩৩ তম বারে মাধ্যমিক পাশ করে দেশে সাড়া ফেলে দিয়েছেন নুরউদ্দিন। তাঁর মাধ্যমিক বিজয় ঘিরে পরিবারে চলছে গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন।

৩৩ তম বারে মাধ্যমিক পাশ করে দেশে সাড়া ফেলে দিয়েছেন নুরউদ্দিন। তাঁর মাধ্যমিক বিজয় ঘিরে পরিবারে চলছে গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন।

  • Share this:

    #হায়দরাবাদ: কথায় আছে কারও পৌষ মাস, তো কারও সর্বনাশ। বর্তমানে করোনা অতিমারি পৃথিবীর সবথেকে বড় অভিশাপ। কবে, কীভাবে এই অভিশাপ থেকে মুক্তি মিলবে তার আশায় পথ চেয়ে সকলে। তবে এই করোনাই আশীর্বাদ হয়ে দেখা দিল হায়দরাবাদের মহম্মদ নুরউদ্দিনের জীবনে।

    উনিশবার ম্যাট্রিক দিয়ে ঘায়েল হয়ে থামেন সুকুমার রায়ের সৎপাত্র গঙ্গারাম। কিন্তু নুরউদ্দিন দমে যাননি। ৩৩ তম বারে মাধ্যমিক পাশ করে সাড়া ফেলে দিয়েছেন দেশে। তাঁর মাধ্যমিক বিজয় ঘিরে পরিবারে চলছে গ্র্যান্ড সেলিব্রেশন। তবে একথা অনস্বীকার্য নুরের পাশ করার নেপথ্যেই কিন্তু রয়েছে করোনার নিদারুণ আশীর্বাদ। শুনতে খটকা লাগলেও একথা একেবারে সত্যি। তা স্বীকার করে নিয়েছেন খোদ নুরউদ্দিন। কিন্তু কীভাবে!

    মাধ্যমিক বিজয়ী নুরউদ্দিনের একটি ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। সেখানে তিনি ৩৩ বছরের সংগৃহীত অ্যাডমিট কার্ড, মার্কশিট সাজিয়ে বসে রয়েছেন। সগর্বে দেখাচ্ছেন সেইসব। পাশাপাশি এ বারের মাধ্যমিক পাশের মার্কশিট রয়েছে বৃদ্ধের হাতে। করোনা অতিমারির আবহে সব পড়ুয়াকে পাশ করিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তের জন্য ভিডিওতে তিনি বারেবারে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন তেলঙ্গানা সরকারকে।

    হায়দরাবাদের বাসিন্দা ৫১ বছরের নুরউদ্দিন জানিয়েছেন, ১৯৮৭ সালে প্রথমবার মাধ্যমিক দিয়েছিলেন। ইংরাজিতে পাশ করতে পারেননি। তারপর থেকে গত ৩৩ বছর ধরে তিনি মাধ্যমিক দিচ্ছেন। প্রতিবারেই অকৃতকার্য হয়েছেন ইংরাজিতে। হতাশ মুখে নুরউদ্দিন জানিয়েছেন, '৩০, ৩১, ৩৩ নম্বর পেলেও কিন্তু কোনভাবেই পাশ নম্বর আসেনি কোনওবছর।'

    তবে দমে যাননি। বৃদ্ধের পণ মাধ্যমিক পাশ করবেনই। ফলে প্রতিবছরের মতো এবারেও মুক্ত বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক দেওয়ার জন্য আবেদন জানান। আবেদনের জন্য ৩০০০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি দেন। এরপর করোনা অতিমারি দেশে প্রভাব বিস্তার করে। বেশ কিছু পরীক্ষা হলে অনেক পরীক্ষা পরিস্থিতির জন্য বাতিল হয়ে যায়।

    এমতাবস্থায় তেলঙ্গনা সরকার ঘোষণা করে, যারা যারা এ বছর মাধ্যমিকের জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তাঁদের সকলকেই পাশ করিয়ে দেওয়া হবে। আর তাতেই হয় 'শাপে বর'। অতিমারী আশীর্বাদে পাশ করে যান বৃদ্ধ নুর। তবে শুধু নুরউদ্দিন নয়। এর আগে রাজস্থানের বাসিন্দা ৭১ বছরের এক বৃদ্ধ ৪৭ তম বারে মাধ্যমিক পাশ করে সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন। সেই জায়গার নুরের সাফল্য এল মাত্র ৩৩ বছরে। এই বা কম কিসের!

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: