মানবাধিকার দিবস ২০২০: দিনটির ইতিহাস, তাৎপর্য ও প্রয়াসের কথা জানেন কি?

মানবাধিকার দিবস ২০২০: দিনটির ইতিহাস, তাৎপর্য ও প্রয়াসের কথা জানেন কি?
১৯৪৮ সালে এই দিনে, ডিসেম্বর মাসের ১০ তারিখে ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি যে ইউনিভার্সাল ডিক্লেরেশন অফ হিউম্যান রাইটস প্রণয়ণ করেছিল

১৯৪৮ সালে এই দিনে, ডিসেম্বর মাসের ১০ তারিখে ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি যে ইউনিভার্সাল ডিক্লেরেশন অফ হিউম্যান রাইটস প্রণয়ণ করেছিল

  • Share this:

এ প্রশ্ন সারা বিশ্বের নিরিখেই চরম সত্য- মানুষ কি কোনও দিনই তার পূর্ণ অধিকার পেয়ে থাকে?

পূর্ণ অধিকারের সঙ্গে কিছু মাত্রায় জুড়ে থাকে স্বেচ্ছাচারের প্রসঙ্গও। সেটুকু বাদ দিয়ে, সমাজ এবং তার দাবিকে অগ্রাধিকার দিয়ে আইন সম্মত ভাবে যা যা অধিকার একটি দেশ তুলে দেয় তার অধিবাসীদের হাতে, সেটাকেই সহজ ভাবে বলা যায় সংশ্লিষ্ট দেশের মানবাধিকার (Human Rights)।

মানবাধিকার দিবসের ইতিহাস-


কিন্তু এর বাইরে রয়েছে এক বৃহত্তর পরিসর। মানুষ যেহেতু বিশ্বগ্রামের অংশ, সে কারণে ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি (United Nations General Assembly) তার অধিকার যাতে সর্বদাই অক্ষুণ্ণ থাকে, সে বিষয়ে নিরন্তর প্রচেষ্টা করে চলে। খবর বলছে যে ১৯৪৮ সালে এই দিনে, ডিসেম্বর মাসের ১০ তারিখে ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি যে ইউনিভার্সাল ডিক্লেরেশন অফ হিউম্যান রাইটস (Universal Declaration of Human Rights) প্রণয়ণ করেছিল, সেই ঘটনাকে স্মরণে রাখতেই সারা বিশ্ব জুড়ে মানবাধিকার দিবস (Human Rights Day) পালন করা হয়ে থাকে।

বেশ কথা! কিন্তু ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি তার ইউনিভার্সাল ডিক্লেরেশন অফ হিউম্যান রাইটস-এ ঠিক কোন কোন অধিকারকে অন্তর্ভুক্ত করেছে? এ প্রশ্ন তোলার কারণ একটাই- দেশভেদে, জাতিভেদে একের অধিকার কখনও কখনও অন্যের আপত্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়!

মানবাধিকার দিবসের তাৎপর্য-

ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলি তার ইউনিভার্সাল ডিক্লেরেশন অফ হিউম্যান রাইটস এত সব কূটকচালির মধ্যে যায়নি। সহজ ভাবে বললে তাদের একটিই উদ্দেশ্য- মানুষ যাতে মাথা উঁচু করে বাঁচতে পারে, সেই জন্যই তার জীবনযাপনের মৌলিক ক্ষেত্রগুলিকে স্বীকৃতি দেওয়া। সেই সূত্র ধরে সাংস্কৃতিক, সামাজিক এবং শারীরিক- এই তিন ক্ষেত্রের অধিকারকেই বিশ্বের নিরিখে সার্বজনীন বলে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে জাতিগত, বর্ণগত, লিঙ্গগত, সমাজগত কোনও অনুশাসনই মানুষের মৌলিক অধিকার ভঙ্গ করতে পারবে না, তা স্পষ্ট ঘোষণা করা হয়েছে।

মানবাধিকার দিবসের প্রয়াস-

চলতি বছরে সংগঠমের যাবতীয় উদ্যোগ ঘিরে রয়েছে করোনাকালের (Covid 19) প্রয়োজনীয়তা মাথায় রেখে। তাই এ বছরের থিম- Recover Better- Stand Up for Human Rights। যাতে বিশ্বের সব প্রান্তের মানুষ করোনাকালে উপযুক্ত চিকিৎসা পান, সেটা সুনিশ্চিত করাই আদত উদ্দেশ্য!

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

লেটেস্ট খবর