corona virus btn
corona virus btn
Loading

কীভাবে বদলাবেন আপনার বাতিল ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ?

কীভাবে বদলাবেন আপনার বাতিল ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ?

১১ নভেম্বর থেকে ব্যাঙ্ক ও পোস্ট অফিসে গিয়ে বদলাতে হবে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ৷ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬ এর মধ্যে নোট বদল করা যাবে ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী রাতারাতি ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের ঘোষণায় নানা প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে গোটা দেশবাসীর মনে ৷ গোটা দেশ তোলপাড় ৷ তার উপর বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক ও এটিএম ৷ এমন পরিস্থিতি কী করবে সাধারণ মানুষ ৷ কী হবে পুরনো নোটগুলির ?  পুরনো নোটগুলি জমা দিয়ে নতুন নোট পাওয়া যাবে তো ? এটিএম ও ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকায় টাকা তুলতে পারছেন না মানুষ ৷ আর যে টাকা বাড়িতে আছে অথার্ৎ ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল করে দিয়েছে সরকার ৷ দু’দিন কোনওভাবে কাটিয়ে দিলেও সমস্যার সমাধান হচ্ছে কী ৷ পুরনো নোটগুলির কী হবে ৷ কালো টাকা রুখতেই এই নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র ৷ এর জেরে হয়রানির মুখে পড়তে হবে আমজনতাকে ৷ পুরনো নোটগুলির তাহলে কী হবে  ? মানুষকে আতঙ্কিত হতে বারণ করেছে প্রধানমন্ত্রী ৷ তিনি জানান, ‘আপনার টাকা আপনারই থাকবে, আতঙ্কিত হবেন না ৷’ ১১ নভেম্বর থেকে ব্যাঙ্ক ও পোস্ট অফিসে গিয়ে বদলাতে হবে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ৷ ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬ এর মধ্যে নোট বদল করা যাবে ৷ তবে তার জন্য সঙ্গে থাকতে হবে ছবি-সহ পরিচয়পত্র ৷ এই তালিকায় থাকবে ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, পাসপোর্ট, প্যান কার্ড, রেশন কার্ডের মতো সবকটি স্বীকৃত ৷

যে কোনও ব্যাঙ্ক থেকে নোট বদল করা যাবে ৷ আপনার যদি সেই ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্টও না থেকে তাহলেও পরিচয়পত্র দেখিয়ে নোট বদল করা যাবে ৷ যেমন ধরুন কারোর বর্ধমানের একটি স্টেট ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট রয়েছে তাহলে তারা কলকাতার যে কোনও স্টেট ব্যাঙ্কের শাখা থেকে টাকা বদলাতে পারবেন ৷ অথার্ৎ একই ব্যাঙ্কের যে কোনও শাখাতে টাকা বদল করা যাবে  ৷ পাশাপাশি অন্য যে কোনও ব্যাঙ্কে গেলেও তা বদল করে দেওয়া হবে ৷ কিন্তু তার জন্য সঙ্গে রাখতে হবে সঠিক ছবি-সহ পরিচয়পত্র ও ব্যাঙ্কের কাগজপত্র  ও অ্যাকাউন্ট নম্বর ৷ ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সবোর্চ্চ ৪ হাজার টাকার নোট বদলে নতুন নোট নেওয়া যাবে ৷ ২৪ নভেম্বরের পর এই ঊর্ধ্বসীমা বাড়তে পারে ৷ ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে বদলাতে না পারলেও সুযোগ থাকবে ৷ ২০১৭ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে আরবিআইয়ের দফরে গিয়ে নোট বদল করার সুযোগ থাকছে ৷ আমাদের দেশে এমন অনেক মানুষই আছেন যাদের কোনও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নেই ৷ গ্রামাঞ্চলের বহু মানুষ ও দারিদ্রসীমার নীচে থাকা মানুষরা কী করবেন ?  যাদের কোনও ব্যাঙ্ক নেই তাদের আশ্বাস দিয়ে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানান, ‘বাড়িতে টাকা থাকলেও আতঙ্কিত হবেন না ৷ যাঁরা বাড়িতে টাকা রাখেন ৷ তারাও টাকা বদল করতে পারবেন ৷’ কিন্তু তার জন্য KYC দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে ৷ এই সুযোগে এই সুযোগে ৫ মিনিটেই অ্যাকাউন্ট খোলাও হবে ৷ চাষিরাও ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট বানান ৷ এছাড়া যাদের প্রধানমন্ত্রীর জন ধন যোজনা প্রকল্পের অধীনে কোনও অ্যাকাউন্ট আছে, তারা সেই অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে টাকার আদান-প্রদান করতে পারবেন তাঁরা। এছাড়া তৃতীয় ব্যাক্তির অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে টাকা বদল করা যাবে কিন্তু তার জন্য সেই ব্যক্তির অনুমতিপত্র দরকার ৷

First published: November 9, 2016, 3:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर