Harsh Vardhan on Dark Chocolate: অক্সিজেন সংকটে ভোগা দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পরামর্শ, চাপ কমাতে খান ডার্ক চকোলেট!

নতুন পরামর্শে শোরগোল

দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনের (Harsh Vardhan) একের পর এক অবিবেচক মন্তব্যও অলোড়ন ফেলছে। মার্চের আগেই যখন চোখ রাঙাতে শুরু করেছিল করোনার দ্বিতীয় থাবা, তখনও হর্ষ বর্ধন দাবি করেছিলেন, ভারত করোনাকে জয় করছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: অত্যন্ত সংকটে ভারত। গোটা দেশে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ (Corona Second Wave)। বিশ্বে রেকর্ড সংক্রমণ ও মৃত্যু নিয়ে চরম সমস্যায় ভারত। আর গোটা পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের দিশাহীনতা, পরিকল্পনাহীনতার দিকে আঙুল তুলছে বিশেষজ্ঞ মহল। দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনের (Harsh Vardhan) একের পর এক অবিবেচক মন্তব্যও অলোড়ন ফেলছে। মার্চের আগেই যখন চোখ রাঙাতে শুরু করেছিল করোনার দ্বিতীয় থাবা, তখনও হর্ষ বর্ধন দাবি করেছিলেন, ভারত করোনাকে জয় করছে। আর এবার গোটা দেশে যখন মৃত্যুমিছিল চলছে, তখন তিনি এবার করোনা আক্রান্তদের মানসিক চাপ কমাতে ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দিলেন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই পরামর্শের ট্যুইটের পরই শোরগোল পড়ে গিয়েছে। ডার্ক চকোলেটে মানসিক চাপ কমার প্রমাণ দাবি করেছেন অনেকে।

    হর্ষ বর্ধন গত ৯ মে নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে ট্যুইটটি করেন। ২টি গ্রাফিক্স রয়েছে। সেখানে কেন্দ্রীয় সরকারের ‘মাই গভ’, ‘মেরা সরকার’-এর লোগোও ব্যবহার করা হয়েছে। আর সেই ট্যুইটেরই একটি অংশে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘মানসিক চাপ বা অবসাদ থেকে বাঁচতে ৭০ শতাংশ কোকো যুক্ত ডার্ক চকোলেট অল্প খান।' আর সেই পয়েন্টটি নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন নেটিজেনরা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে ডার্ক চকোলেটের মাধ্যমে মানসিক অবসাদ কমার প্রমাণও চান তাঁরা।

    তবে ডার্ক চকোলেট ছাড়াও নানা রকম ফল, সবজি খেতে বলেছেন হর্ষ বর্ধন। হলুদ মিশ্রিত দুধ দিনে একবার খাওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও আখরোট, আমন্ড, অলিভ অয়েল, সর্ষের তেল, মুরগির মাংস, মাছ, ডিম, পনির, সোয়া, বাদামও খেতে বলেছেন দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী। যদিও হর্ষ বর্ধনের করোনা 'ব্যর্থতা' নিয়েই বেশি সরব সোশ্যাল মিডিয়া। করোনার চিকিৎসায় পতঞ্জলির করোনিল ট্যাবলেট খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন হর্ষ বর্ধন। কিন্তু করোনার মোকাবিলায় পরিকাঠামো উন্নয়ন নিয়ে বারবার তাঁর ব্যর্থতাই যেন ফুটে উঠেছে বর্তমান সময়ে।

    প্রসঙ্গত, ভ্যাকসিন, অক্সিজেনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একের পর চিঠি লিখে চলছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আর মুখ্যমন্ত্রী পাল্টা হিসেবে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনকে এগিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র৷ পাল্টা চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, অবিলম্বে রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো উন্নয়ন করা প্রয়োজন৷

    Published by:Suman Biswas
    First published: