টাকার ব্যাগ চুরি যেতেই মুহূর্তে ঠিক ভিখারির ভাঙা পা! 'মিরাকেল' ভিডিও ভাইরাল

টাকার ব্যাগ চুরি যেতেই মুহূর্তে ঠিক ভিখারির ভাঙা পা! 'মিরাকেল' ভিডিও ভাইরাল
photo source Twitter

ভিডিওর শেষটা দেখতে ভুলে যাবেন না ! শেষেই রয়েছে মিরাকেল !

  • Share this:

    #মুম্বই: বোঝো কাণ্ড ! পেট চালাতে মানুষকে কত কিই না করতে হয় ! তাই বলে নকল ভিখারি সেজে বসে থাকবে কেউ ! আমাদের দেশের মন্দির, মসজিদ বা কোনও জনবহুল এলকা, শপিংমল এসবের সামনে প্রচুর ভিখারি সব সময় দেখা যায়। বাচ্চা কোলে নিয়ে মাকে ভিক্ষা করতে দেখা যায় ! কখনও ছোট বাচ্চারা নোংরা জামা-কাপড় পরে এসে খাবার খাব বলে টাকা চাইতে থাকে। ছোটবেলা থেকেই তাদের শেখানো হয় ভিক্ষা করানো। অনেকে তো আবার দিন প্রতি দুধের শিশুকে ভাড়া দিয়ে দেন। সকালে এসে বাচ্চা নিয়ে চলে যায় প্রফেশনাল ভিখারি। সারাদিন স্টেশনের ধারে, বা কোনও জনবহুল এলাকায় সেই বাচ্চাকে শুইয়ে রেখে ভিক্ষা করতে থাকে মহিলারা। দেখেই বোঝা যায় অনেক কিছুই সে করতে পারে, কিন্তু তা না করে সব থেকে সহজে রোজগারের রাস্তা বেছে নেয় এরা।

    এই সেই ভাইরাল ভিডিও। শেষটা দেখতে ভুলে যাবেন না ! শেষেই রয়েছে মিরাকেল ! দেখে নিন সেই মিরাকেল ভিডিও ! চমকে যাবেন আপনি ---

    যা সত্যিই খুব বিরক্তিকর। সরকার থেকে হাজার রকম কাজের ব্যবস্থা করা হলেও এই ভিক্ষজীবিরা কখনও সে পথে হাঁটে না। ভারতের মতো দেশে দারিদ্রসীমার নীচে থাকা মানুষরা এভাবেই সহজে জয়িন কাটাতে একটুও দ্বিধা বোধ করে না। সুস্থ মানুষ অনেক সময় নিজের হাত বা পায়ে ব্যান্ডেজ করে সারাদিন মিথ্যে নাটক পর্যন্ত করেন ভিক্ষা করার জন্য। আর এই সব চক্করে পড়ে সত্যিই যারা সে সময় একটু খাবারের জন্য টাকা চান, তাদেরকেও নকলের খাতায় ধরে নেওয়া হয় অনেক সময়। তবুও আপনার সামনে বার বার কেউ হাত পাতলে, একটা সময় পর মনেই হয় আচ্ছে কিছু দিয়ে দিই। কত টাকাই তো এদিক-ওদিক খরচা হয়। আর ঠিক এই সুযোগটাই নিতে অভ্যস্ত হয়ে উঠছে এক শ্রেণির মানুষ

    সম্প্রতি একটি মজার ভিডিও ট্যুইটারে শেয়ার করেছেন ব্যাবসায়ী হর্ষ গোয়েঙ্কা। তিনি তাঁর ট্যুইটার হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও শেয়ার করে বলেছেন, 'মিরাকেল হল..'। তা কি আছে সেই ভিডিওতে? দেখা যাচ্ছে রাস্তার মাঝখানে বসে একজন লোক ভিক্ষা করছে। সে হাঁটতে পারে না। একটা পা সাদা মোটা ব্যান্ডেজে বাঁধা বা প্লাস্টার করা। সেই পা দেখিয়ে ওই ভিখারি মানুষের থেকে সাহায্য চাইছেন। পথ-চলতি অনেক মানুষ ওই ব্যক্তির অসহায় অবস্থা দেখে টাকা দিয়ে যাচ্ছেন। এমন সময় এক যুবক ওই রাস্তা দিয়েই যাচ্ছিল। সে ওই ব্যক্তির আকুতি শুনে এগিয়ে আসে। প্রথমে কয়েকটি নোট দেয় ভিখরিকে। তারপরেই ঘটে আসল চমক। ছেলেটি হঠাৎ ওই ব্যক্তির টাকার ব্যাগটি নিয়ে ছুট দেয়। মাজার কাণ্ড হল এতক্ষণ ধরে যে ব্যক্তি পা ভাঙা দেখিয়ে রাস্তায় বসে ভিক্ষা করছিল, সে সঙ্গে সঙ্গে উঠে দাঁড়িয়ে ওই যুবকের পিঁছনে ছোটে। যা দেখে সকলে তাজ্জব হয়ে যায়। জানা যায় বেশ অনেকদিনধরেই ওই এলাকায় ভাঙা পা দেখিয়ে ভিক্ষা করছিল ওই ব্যক্তি। কিন্তু আসলে পুরোটাই নকল। তার পা মোটেও ভাঙা না। মিথ্যে কথা বলে মানুষের সমবেদনা আদায় করে ভিক্ষা করাকেই নিজের পেশা বানিয়েছিল ওই ব্যক্তি। যা বুঝতে পেরেই ওই যুবক চালাকি করে ভিখারির সঙ্গে। এই মুহূর্তটিকে ক্যামেরা বন্দি করে ওখানকার কয়েকজন যুবক। তারপর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর ওই ভিখারিকে জেরা করা হলে, কোনও উত্তর দিতে পারে না সে। এলাকা ছাড়া করা হয় ওই ভিখারিকে। তবে এই ধরণের ঘটনা নতুন নয়। হামেশাই এই ধরণের মিথ্যে নাটক করে টাকা রোজগারের সহজ পথ বেছে নিচ্ছে কিছু মানুষ। যেখানে তারা চাইলেই সঠিক পথে দিনমজুরি বা ছোট খাট কাজ করে সংসার বা নিজের পেট চালাতে পারে। কিন্তু সহজ রাস্তা থাকতে কেউ কঠিন রাস্তায় কেন যাবে ! এই ভিডিও দেখা মাত্রই সকলে শেয়ার ও কমেন্ট করেন। এবং ওই যুবকের বুদ্ধির প্রশংসা করেন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: