corona virus btn
corona virus btn
Loading

২৬/১১ জঙ্গি কাসভকে চিনিয়েছিলেন! ফুটপাথে না-খাওয়া অবস্থায় উদ্ধার সেই বৃদ্ধ

২৬/১১ জঙ্গি কাসভকে চিনিয়েছিলেন! ফুটপাথে না-খাওয়া অবস্থায় উদ্ধার সেই বৃদ্ধ
ফুটপাথে হরিশচন্দ্র (ইনসেটে কাসব)

কাসব ও তার সঙ্গী আবু ইসমাইল কামা হাসপাতালের সামনে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়েছিল তাজ হোটেলে ঢোকার আগে৷ হরিশচন্দ্র কাসবকে ব্যাগ দিয়ে মারতে গিয়েছিল৷ তখনই গুলি লাগে৷

  • Share this:

#মুম্বই: রাস্তার ধারে ঝুপড়িতে ত্রিপল টাঙিয়ে কোনও পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন এক বৃদ্ধ৷ দীর্ঘ দিন প্রায় উচ্ছিষ্ট খেয়ে, কোনও দিনই একেবারে না-খেয়ে হাড় গোনা যাচ্ছে শরীরের৷ গাল ভর্তি সাদা দাড়ি৷ মাথায় জট পড়ে যাওয়া পাকা চুল৷ চোখ ফ্যাকাশে৷ বৃদ্ধের নাম হরিশচন্দ্র শ্রীবরধনকর৷ বয়স ৭০ ছুঁতে চলল৷ একটি দোকানের মালিক তাঁকে উদ্ধার করেছেন৷

কে এই হরিশচন্দ্র শ্রিবরধনকর? ইনিই হলেন সেই ব্যক্তি, যিনি ২৬/১১ মুম্বই হামলার জঙ্গি আজমল কাসবকে চিনিয়েছিলেন৷ জঙ্গিদের ছোড়া একটি গুলিও তাঁর শরীরে ভেদ করেছিল৷ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে বেঁচে গিয়েছিলেন শেষমেশ৷

ইন্ডিয়া টুডে-র খবর অনুযায়ী, হরিশচন্দ্রকে সম্প্রতি তাঁর বাড়ির লোকেরা বের করে দিয়েছে৷ রাস্তার ধারে ফুটপাথই তাঁর আশ্রয়৷ খাবার জোটে না৷ উদ্ধারকারী দোকানদার ডিন ডি সুজা জানাচ্ছেন, হরিশচন্দ্র খেতে না পেয়ে শরীরে অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ কী ভাবে বাঁচবেন, বুঝতে পারছি না৷ কাসব ও তার সঙ্গী আবু ইসমাইল কামা হাসপাতালের সামনে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়েছিল তাজ হোটেলে ঢোকার আগে৷ হরিশচন্দ্র কাসবকে ব্যাগ দিয়ে মারতে গিয়েছিল৷ তখনই গুলি লাগে৷

একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হরিশচন্দ্রকে আশ্রয় দিয়েছে৷ ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্ণধার গায়কোয়াড়ের কথায়, 'আমরা ওঁকে খাবার দিয়েছিলাম, কিন্তু উনি খেলেন না৷ আমরা ওঁকে স্নান করিয়ে একজন নাপিত ডেকে চুল-দাড়ি কাটালাম৷ কিন্তু বৃদ্ধ কথা বলতে পারছেন না৷ খালি বিড়বিড় করে বলছেন, বিএমসি, হরিশচন্দ্র, মহালক্ষ্মী৷ আমাদের মনে হচ্ছে, কাছেই ওঁর কোনও আত্মীয় থাকেন৷ আমরা সারাদিন ধরে বিএমসি কলোনিতে খোঁজ চালাই৷ হরিশচন্দ্রের ভাইকে চিহ্নিত করি৷ উনি জানান, হরিশচন্দ্রের বাড়ি কল্যাণে৷'

গায়কোয়াড় জানিয়েছেন, তাঁরা সব খতিয়ে দেখে পুলিশের কাছে সাহায্য চান৷ করোনার জেরে লকডাউন চলছে মুম্বইয়ে৷ পুলিশ হরিশচন্দ্রের ভাইকে স্পেশাল পাস দিয়েছে কল্যাণ যাওয়ার জন্য৷

দুঃখের বিষয় হল, হরিশচন্দ্রের পরিবার তাঁকে আর ফেরাতে চাইছে না৷ তাঁদের দাবি, হরিশচন্দ্রকে কোনও আশ্রমে দিয়ে দিক৷

Published by: Arindam Gupta
First published: May 5, 2020, 6:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर