ইন্সপেক্টর বাবার থেকে স্যালুট ডিএসপি মেয়ের, জানালেন তাঁর সংগ্রামের কথা!

ইন্সপেক্টর বাবার থেকে স্যালুট ডিএসপি মেয়ের, জানালেন তাঁর সংগ্রামের কথা!
বাবা ওয়াই শ্যামসুন্দর অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশের সার্কেল ইন্সপেক্টর। বাবাই যে তাঁর জীবনের হিরো সেটা অকপটে জানালেন জেসি।

বাবা ওয়াই শ্যামসুন্দর অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশের সার্কেল ইন্সপেক্টর। বাবাই যে তাঁর জীবনের হিরো সেটা অকপটে জানালেন জেসি।

  • Share this:

#বেঙ্গালুরু: বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ছেলেমেয়েরা তাঁদের জীবন গড়ে তোলার ক্ষেত্রে বাবা-মাকেই আদর্শ হিসেবে মেনে নেয়। তাঁদের দেখেই জীবনের চলার পথ খুঁজে নেয় তাঁরা। অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ বিভাগে এমনই এক ছবি দেখা গেল। গুনটুর জেলার জেসি প্রশান্থি ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট অফ পুলিশ হয়েছেন। আর পুলিশের এই উচ্চপদ পাওয়ার ক্ষেত্রে জেসির অনুপ্রেরণা তাঁর বাবা। সার্কেল ইন্সপেক্টর বাবা কুর্নিশ জানাচ্ছেন ডিএসপি মেয়েকে, এই ছবি ভাইরাল হয়েছে সম্প্রতি। অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ #APPolice1stDutyMeet brings a family together এই হ্যাশট্যাগ সমেত এই ছবি ট্যুইট করেছে। এই বিষয়ে কিছু দিন আগে জেসি নিজেই শোনালেন তাঁর সংগ্রামের কাহিনি।

বাবা ওয়াই শ্যামসুন্দর অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশের সার্কেল ইন্সপেক্টর। বাবাই যে তাঁর জীবনের হিরো সেটা অকপটে জানালেন জেসি। মেয়ে প্রতি দিন সকালে উঠে দেখতেন যে পুলিশের পোশাক পরে বাবা রেডি হয়ে আছেন। এই ভাবে বাবাকে দেখে মুগ্ধ হয়ে যেতেন জেসি। ছোটবেলার নানা স্মৃতি এখনও উজ্জ্বল হয়ে আছে জেসির মনে। বাবা কাজে বেরোলে ছোট্ট জেসি তাঁর হাত ধরে মাঝে মাঝে যেতেন। বাবা টহলদারি করতেন আর জেসি অবাক হয়ে দেখতেন তাঁকে সম্মান জানিয়ে কী ভাবে সবাই কুর্নিশ জানাচ্ছেন। এই স্যালুট করা দেখে অবাক হয়ে যান জেসি। কেন তাঁর বাবাকে স্যালুট করা হচ্ছে এটা অত ছোট বয়সে বুঝতে না পারলেও জেসিও প্রতি দিন সকালে বাবাকে স্যালুট জানাতে শুরু করে!

বড় হওয়ার পরে জেসি বুঝতে পারেন পুলিশের চাকরির গুরুত্ব ঠিক কতটা! এটাও অনুভব করতে পারেন যে তাঁর বাবার মতো অন্যান্য পুলিশ অফিসারদের নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়। পরিবার, পরিজনের কথা ভুলে কত আত্মত্যাগ করতে হয়! পুলিশের কাজ যে ঠিক ন’টা থেকে পাঁচটার চাকরি নয়, সেটা জেসি বুঝতে পারেন। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান যে একেক সময় তাঁর বাবা রাতের পর রাত জেগে কাটিয়েছেন, খেতেও ভুলে গিয়েছেন কাজের চাপে।

জেসি দু’বছর পুলিশের এই পদে বহাল হয়েছেন। এখন নিজে পুলিশের চাকরি করে বুঝতে পারছেন এই কাজ মোটেও সহজ নয়। কিন্তু তাই বলে তিনি হাল ছেড়ে দিতে চান না, দেশের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পেরে গর্বিত ডিএসপি জেসি প্রশান্থি।

Published by:Pooja Basu
First published: