কেন্দ্রের কাছে ৫০০ কোটি টাকা পেয়েও পরিষেবা বন্ধের আশঙ্কা এয়ার ইন্ডিয়ার

কেন্দ্রের কাছে ৫০০ কোটি টাকা পেয়েও পরিষেবা বন্ধের আশঙ্কা এয়ার ইন্ডিয়ার
Representational Image
  • Share this:

Shalini Datta

#কলকাতা: সেন্টার ফর এশিয়া প্যাসিফিক অ্যাভিয়েশন (CAPA) - বিমান চলাচল ও ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহকারী সংস্থা তাদের রিপোর্টে ২০১৯-২০২০ অর্থবর্ষে এয়ার ইন্ডিয়ার যথেষ্ট ক্ষতির সম্ভাবনার কথা জানিয়েছিল। সংস্থার বক্তব্য অনুযায়ী, পরিস্থিতি এখন আরও ভয়াবহ। জানা যাচ্ছে, এয়ার ইন্ডিয়া তাদের বিমান পরিষেবা বন্ধ করতে বাধ্য হতে পারে যদি সরকারের তরফ থেকে যথেষ্ট সাহায্যের আশ্বাস না পায়। তবে একটাই স্বস্তির খবর, কেন্দ্রের তরফে আপাতত ৫০০ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে এয়ার ইন্ডিয়াকে ৷ যাতে পরিষেবা এখনই বন্ধ না হয়ে যায় ৷

এয়ার ইন্ডিয়া কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে ২০০০ কোটি টাকা লোন এবং ৮১৯ মিলিয়ন ডলার লোন পরিশোধের সাহায্যের জন্য দরখাস্ত করেছে। এয়ার ইন্ডিয়া বর্তমানে একটি ব্যাঙ্ক থেকে ৮১৯ মিলিয়ন ডলার লোন রি-পেমেন্ট-এর আশ্বাস পেয়েছে ৷ যা ৬টি B787 এবং একটি B777 কিনতে নেওয়া হয়েছিল।

গত আর্থিক বরষে এয়ার ইন্ডিয়া ৫৫৫৬ কোটি টাকা ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে। জানা যায় যে ২০০৭ ও ২০০৮-এ এয়ার ইন্ডিয়া ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের সঙ্গে যুগ্মভাবে ব্যবসা শুরু করার পর কখনও লাভের মুখ দেখেনি। লোকসভায় এয়ার ইন্ডিয়ার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা চলাকালীন অনেকেই এয়ার ইন্ডিয়াকে আরও সরকারি সাহায্যের বিরুদ্ধে মত দেন।

বর্তমানে এয়ার ইন্ডিয়া ভারতের ৫৫টি শহরে এবং ভারতের বাইরে ৩১টি আলাদা দেশে বিমান পরিষেবা সরবরাহ করে। তা সত্ত্বেও গত দশ বছরে এয়ার ইন্ডিয়া প্রায় ৬৯৭০০ কোটি টাকা ক্ষতি করেছে। এরকম একটা সংস্থাকে করদাতাদের টাকা আবারো সাহায্য করতে নারাজ অনেকেই।এয়ার ইন্ডিয়া বিমান পরিষেবা বিষয়ক মন্ত্রককে চিঠি দিয়ে নিজেদের দাবিগুলো জানিয়েছেন।

মন্ত্রকের বক্তব্য অনুযায়ী সেই চিঠি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের অনুমোদন জন্য পাঠানো হয়েছে। ২৭ ডিসেম্বর সরকারের তরফে এয়ার ইন্ডিয়ার লোন পরিশোধের গ্যারান্টি শেষ হতে চলেছে। তার আগে সরকারের পক্ষ থেকে নতুন কোনও প্রতিশ্রুতি না পেলে তা এই এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য যথেষ্ট উদ্বেগের কারণ হবে।

First published: 11:05:40 PM Dec 20, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर