• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • GO TO AFGHANISTAN BIHAR BJP MLAS HORRIFIC REMARK TO BE THE LATEST TWIST RC

BJP MLA Threats Go to Afghanistan: 'ভারতে থাকতে ভয় পেলে আফগানিস্তানে চলে যান', বিজেপি নেতার হুমকিতে বিতর্ক!

বিজেপি বিধায়ক হরি ভূষণ ঠাকুর

এমন সময় বিহারের বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে (BJP MLA Threats Go to Afghanistan)।

  • Share this:

    #পটনা: ভারতের প্রতিবেশী দেশ আফগানিস্তান জ্বলছে। কার্যত বিনা বাধায় গোটা দেশের দখল নিয়েেছ তালিবান। বিশ্বজুড়ে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি শোরগোল ফেলে দিয়েছে। এমন সময় বিহারের বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে (BJP MLA Threats Go to Afghanistan)। বুধবার বিজেপি বিধায়ক হরি ভূষণ ঠাকুর বাচাউল বলেছেন, 'ভারতে থাকতে ভয় পেলে আফগানিস্তানে চলে যান'। এমন মন্তব্যে দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কেই আক্রমণ করেছেন বিজেপি নেতা, মনে করছেন বিরোধীরা।

    কিছু দিন আগে বিজেপি নেতাদের অনেকের মুখেই শোনা গিয়েছিল, 'পাকিস্তানে চলে যাও' এমন হুমকি। সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা শুনলেই 'পাকিস্তানে চলে যাও' এমন হুমকি শুনতে হয়েছিল অনেককেই। সেই মন্তব্য এবার নতুন রূপে সামনে এসেছে, 'আফগানিস্তানে চলে যান' হিসেবে। পটনার বিসফি বিধানসভা কেন্দ্রের এই বিজেপি বিধায়কের দাবি, 'আফগানিস্তানের এই পরিস্থিতি ভারতে কোনও প্রভাব ফেলবে না। এতে বোঝা যাবে দুই দেশের ফারাক।'

    তিনি আরও মন্তব্য করেছেন, 'ভারতে এর কোনও প্রভাব পড়বে না কিন্তু যারা এখানে ভয় পাচ্ছেন, তারা ওখানে চলে যান। পেট্রোল-ডিজেলের অনেক কম দাম ওখানে... ওখানে গেলে বুঝতে পারবেন ভারতের গুরুত্ব কী'। এদিন পেট্রোল-ডিজেলের দাম নিয়ে বিরোধীরা প্রতিবাদ করায়, এমন মন্তব্য করেন বিজেপির বিধায়ক। তাঁর কথায়, 'জঙ্গলেও নিয়ম থাকে... কিন্তু ওখানে মহিলাদেরও কোনও অধিকার নেই। বিমানের ডানায় উঠে দেশ ছাড়ছেন লোকেরা। তিনজন মারাও গিয়েছেন'।

    এরই সঙ্গে হরি ভূষণ ঠাকুরের আরেকটি ভয়ংকর মন্তব্য সামনে এসেছে। জেডিইউ নেতা গুলাম রসুল বলওয়ানি কেন্দ্রের কাছে দাবি করেছিলেন, সব ধর্মের আফগানিদের উদ্বাস্তু হিসেবে থাকতে দিক। তার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি বিধায়ক বলেছেন, 'তাহলে দেশটা তালিবান হয়ে যাবে। অধর্মের জন্যই দেশটা ভাগ হয়ে গিয়েছে। এ দেশের লোকেরা সংযত না হলে আফগানিস্তান হয়ে উঠবে ভারত।'

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: