শিক্ষিকার সঙ্গে সমকামিতার সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় মা'কে পিটিয়ে খুন করল মেয়ে

শিক্ষিকার সঙ্গে সমকামিতার সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় মা'কে পিটিয়ে খুন করল মেয়ে

representative image

নৃশংসবাভে পিটিয়ে মা'কে খুন করল মেয়ে। ঘটানাটি ঘটে, দিল্লির কবি নগর অঞ্চলে। শিক্ষিকার সঙ্গে সমকামিতার সম্পর্কে বাধা দেওয়াতেই রেগে গিয়ে মাকে খুন করলেন ২১ বছরের রেশমি রানা।

  • Share this:

    # গাজিয়াবাদ: নৃশংসবাভে পিটিয়ে মা'কে খুন করল মেয়ে। ঘটানাটি ঘটে, দিল্লির কবি নগর অঞ্চলে। শিক্ষিকার সঙ্গে সমকামিতার সম্পর্কে বাধা দেওয়াতেই রেগে গিয়ে মাকে খুন করলেন ২১ বছরের রেশমি রানা।

    আচমকাই মা পুষ্পা দেবীর উপর চড়াও হন রেশমি ও তাঁর সঙ্গী নিশা গৌতম। মাথায় একাধিকবার আঘাত করেন লোহার রড দিয়ে। মাথা থেঁতলে যায় পুষ্পা দেবীর।

    আরও পড়ুন-ঝাড়খণ্ডে মাওবাদী-পুলিশ সংঘর্ষে মৃত ৫ মাওবাদী

    ৯ মার্চ কবি নগর পুলিশ স্টেশনে, রেশমি ও তাঁর সঙ্গী নিশার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন রেশমির বাবা সতীশ কুমার। তাঁর স্ত্রীর মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করেছে রেশমি ও নীশা। এই আঘাতের জেরেই মৃত্যু হয় তাঁর। এমনটাই অভিযোগ করেন সতীশ কুমার।

    এরপরই রেশমি ও নিশার খোঁজে তদন্ত শুরু করে কবি নগর থানার পুলিশ। অবশেষে আজ, গাজিয়াবাদ রেলস্টেশন থেকে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। পুলিশি জেরায় দোষ স্বীকার করেন রেশমি।

    আরও পড়ুন-ভিনরাজ্যে কাজের সন্ধানে গিয়ে নিখোঁজ বর্ধমানের নাবালক

    পুলিশ সুপার আকাশ তোমার জানান, '' মা বাবার সঙ্গেই থাকতেন রেশমি। নিশা গৌতমের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল। সেটা জানার পরই, মেয়েকে নিশার সঙ্গে আর কোনও যোগাযোগ রাখতে বারণ করেন পুষ্পা দেবী । এতেই রেগে গিয়ে তাঁর মাথায় রড দিয়ে আঘাত করেন রেশমি ও নিশা।''

    তিনি আরও জানান, যখন ঘটনাটি ঘটেছে, পুষ্পা দেবীর স্বামী বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন না।

    দোষ স্বীকার করার পর রেশমি পুলিশকে জানান, এই সম্পর্কর কারণে তাঁর মা তাঁকে মাঝেমধ্যেই খুব অত্যাচার করতেন।

    আরও পড়ুন-দলিত আইন সংশোধনের দাবি, কেন্দ্রের ওপর চাপ বাড়ালো বিরোধীরা

    First published: