Home /News /national /
আলোচনায় কাজ না হলে সামরিক পথ খোলা, লাদাখ নিয়ে হুঁশিয়ারি বিপিন রাওয়াতের

আলোচনায় কাজ না হলে সামরিক পথ খোলা, লাদাখ নিয়ে হুঁশিয়ারি বিপিন রাওয়াতের

তিন বাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত৷Photo- PTI

তিন বাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত৷Photo- PTI

পূর্ব লাদাখে সীমান্ত সংক্রান্ত জট কাটাতে গত প্রায় আড়াই মাস ধরে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ভারত এবং চিন৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা পুরোপুরি ফলপ্রসূ হয়নি৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আলোচনার মাধ্যমে সমাধান না হলে লাদাখে চিনা সেনার অনুপ্রবেশ রুখতে সামরিক পথই অবলম্বন করবে ভারত৷ রাখঢাক না করেই লাদাখ নিয়ে ভারতের কঠোর অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন তিন বাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত৷ সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিক হিন্দুস্তান টাইমস-কে এমনই জানিয়েছেন ভারতের চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (CDS)৷

    রাওয়াত জানিয়েছেন, কূটনৈতিক স্তরে এবং দু' দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে যে আলোচনা চলছে, তা যদি শেষ পর্যন্ত ফলপ্রসূ না হয়, সেক্ষেত্রে সামরিক উপায় অবলম্বন করতে দ্বিধা বোধ করবে না ভারত৷ রাওয়াত বলেন, 'শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমেই এই ধরনের অনুপ্রবেশ রুখতে আগ্রহী সরকার৷ কিন্তু সবরকম চেষ্টার পরও যদিও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর স্থিতাবস্থা ফিরে না আসে, তার জন্য বাহিনীকে সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হয়৷' তিনি আরও জানান, লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় স্থিতাবস্থা আগের জায়গায় ফিরছে কিনা, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল তা লাগাতার পর্যবেক্ষণ করছেন৷

    পূর্ব লাদাখে সীমান্ত সংক্রান্ত জট কাটাতে গত প্রায় আড়াই মাস ধরে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ভারত এবং চিন৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা পুরোপুরি ফলপ্রসূ হয়নি৷ গত বৃহস্পতিবারও কূটনৈতিক স্তরে আরও এক দফা আলোচনা হয়েছে৷ তার পরে ভারতের বিদেশমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, বর্তমানে দু' দেশের মধ্যে থাকা চুক্তিগুলি মেনেই দ্রুত সমস্ত বিবাদ দূর করতে চায় ভারত৷

    সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবারের বৈঠকও সে অর্থে ইতিবাচক হয়নি৷ জুলাই মাসে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-টেলিফোনে দু' ঘণ্টার আলোচনার পর প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা পিছোতে শুরু করে দু' পক্ষ৷ কিন্তু জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে সেই প্রক্রিয়া থমকে গিয়েছে৷ কেন্দ্রীয় সরকারের এক শীর্ষ সূত্রের দাবি অনুযায়ী, সেনা পিছনোর বিষয়টি আদৌ গুরুত্ব দিয়ে দেখছে না চিনা বাহিনী৷ যার ফলে তাদের ভুগেত হবে৷ কারণ ভারতীয় সেনা কড়া জবাব দিতে তৈরি রয়েছে৷ ভারতের দাবি স্পষ্ট, এপ্রিল মাসের আগের অবস্থানে ফিরে যেতে হবে চিনের সেনাবাহিনীকে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Ladakh

    পরবর্তী খবর