corona virus btn
corona virus btn
Loading

কাশ্মীরে গো-রক্ষকদের মস্তানি, ফেলে মারা হল বাবা ছেলেকে, স্লোগান উঠল, দেশ কি গদ্দারও কো..

কাশ্মীরে গো-রক্ষকদের মস্তানি, ফেলে মারা হল বাবা ছেলেকে, স্লোগান উঠল, দেশ কি গদ্দারও কো..
গণপিটুনির ভিডিওটি এখন ভাইরাল।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে , গোরক্ষকরা মারতে মারতে স্লোাগান দিচ্ছেন, "দেশ কি গদ্দারও তো গোলি মারও শালো কো।"

  • Share this:

#শ্রীনগর: গোরক্ষকদের হিংসার কবলে পড়ল জম্মু কাশ্মীরের এক প্রত্যন্ত গ্রামীণ পরিবার। ৪৮ বছর বয়সি এক পশুপালক এবং তাঁর ছেলেকে ধরে রেখে গণধোলাই দিন উন্মত্ত জনতা। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন মহম্মদ আসগর ও তাঁর ছেলে।

ঘটনার সূত্রপাত দিন কয়েক আগে। স্থানীয়রা আসগরের কাছে এসে অভিযোগ জানায় তাঁদের গরু অন্যের জমিতে ঢুকে ফসল নষ্ট করছে, এর বিহিত চাই। আসগরের ছেলে সবটা শুনে তাঁদের গবাদি পশুকে অন্যের জমিতে নিজের গোয়ালে ফিরিয়ে আনেন। গোরক্ষকদের অভিযোগ এই সময়েই আসগর নাকি আঘাত নিজের একটি গরুকে আঘাত করেছিল, ফলে পশুটির গায়ে ক্ষত তৈরি হয়। আসগরের বিচারের জন্য গ্রামে সালিশি সভা বসে। তাঁকে সেখানে ডেকে পাঠান গ্রামপ্রধান।

মালিক আব্বাস নামক এক স্থানীয় সমাজকর্মী জানাচ্ছেন, খুড়তুতো ভাই-সহ সেখানে আসগর পৌঁছতেই তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন গোরক্ষকরা। নির্মম ভাবে রাস্তায় ফেলে মারা হয় আসগরকে।

গোটা ঘটনার ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে। ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতার নইম আখতার, জম্মুর আদিবাসী নেতা গুফতার আহমেদ-সহ বেশ কয়েকজন সমাজকর্মী পুলিশের কাছে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করেছেন।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে , গোরক্ষকরা মারতে মারতে স্লোাগান দিচ্ছেন, "দেশ কি গদ্দারও তো গোলি মারও শালো কো।"

আসগারের ভাই মুস্তক আহমেদ সংবাদমাধ্যমকে জানান, "ওঁকে মারতে অন্তত ৭০ জন জমা হয়ে গিয়েছিল,ওঁর অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক, যে নির্মমতা ওকে সহ্য করতে হয়েছে তা এক কথায় অবর্ণনীয়"।

শুধু তাই নয়, মুস্তক জানাচ্ছেন, পশু নির্যাতনের অভিযোগে আসগরের ১৬ বছর বয়সি ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের বয়ান দূরত্বের কারণে এই ঘটনার খবর পেয়েও সময়ে পৌঁছনো সম্ভব হয়নি। তবে এলাকার পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক।

কাশ্মীরে গরোকক্ষকদের দাপাদাপি নতুন নয়। ২০১৭ সালে পশুপাচারের অভিযোগে গুজ্জর-সম্প্রদায় ভুক্ত এক ৭০ বছর বয়সি বৃদ্ধ এবং তাঁর ছেলেকে গণপ্রহার করা হয়।

Published by: Arka Deb
First published: August 16, 2020, 3:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर