• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • গ্যাস লিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে, ফাঁকা করা হচ্ছে গ্রাম, জানাচ্ছে এলজি পলিমার্স ইন্ডিয়া

গ্যাস লিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে, ফাঁকা করা হচ্ছে গ্রাম, জানাচ্ছে এলজি পলিমার্স ইন্ডিয়া

লকডাউনের জেরে প্রায় ৪৫ দিন বন্ধ ছিল কারখানা৷ পুনরায় খোলার ব্যবস্থা চলছিল৷ তার মধ্যেই এই বিপত্তি৷ কারখানা বন্ধ থাকার ফলে রক্ষণাবেক্ষণ হয়নি অনেকদিন৷ সেই থেকেই এই দুর্ঘটনা কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

লকডাউনের জেরে প্রায় ৪৫ দিন বন্ধ ছিল কারখানা৷ পুনরায় খোলার ব্যবস্থা চলছিল৷ তার মধ্যেই এই বিপত্তি৷ কারখানা বন্ধ থাকার ফলে রক্ষণাবেক্ষণ হয়নি অনেকদিন৷ সেই থেকেই এই দুর্ঘটনা কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

লকডাউনের জেরে প্রায় ৪৫ দিন বন্ধ ছিল কারখানা৷ পুনরায় খোলার ব্যবস্থা চলছিল৷ তার মধ্যেই এই বিপত্তি৷ কারখানা বন্ধ থাকার ফলে রক্ষণাবেক্ষণ হয়নি অনেকদিন৷ সেই থেকেই এই দুর্ঘটনা কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

  • Share this:

    #বিশাখাপত্তনম: দেশজুড়ে করোনা আতঙ্ক ও লকডাউনের বন্দিদশার মধ্যেই ফিরে এল ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনার স্মৃতি৷ বিশাখাপত্তনমের আর আর ভেঙ্কটপুরমে এলজি পলিমার্স ইন্ডাস্ট্রির কারখানায় লিক হওয়া গ্যাসে মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের৷ এই সংখ্যাটা আরও বাড়বে বলেই আশঙ্কা৷ এই অবস্থায় ঘণ্টাখানেকের মধ্যে গ্রাম খালি করা হবে বলে সংস্থার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন৷ আশেপাশে গ্রামের মানুষকে ঘরের মধ্যে থাকার আর্জি করেছেন স্থানীয় প্রশাসন৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল, অ্যাম্বুলেন্স৷

    তবে আপাতত কারখানার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে জানিয়েছেন এলজি পলিমার্স ইন্ডাস্ট্রি কর্তৃপক্ষ৷ লকডাউনের জেরে প্রায় ৪৫ দিন বন্ধ ছিল কারখানা৷ পুনরায় খোলার ব্যবস্থা চলছিল৷ তার মধ্যেই এই বিপত্তি৷ কারখানা বন্ধ থাকার ফলে রক্ষণাবেক্ষণ হয়নি অনেকদিন৷ সেই থেকেই এই দুর্ঘটনা কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

    অসুস্থ হয়েছেন ২০০-র বেশি মানুষ৷ রাত আড়াইটে নাগাদ কেমিক্যাল প্লান্ট থেকে বিষাক্ত গ্যাস নিঃসরণ হতে থাকে৷ এলাকায় সেই গ্যাস ছড়িয়ে পড়তেই স্থানীয় মানুষের চোখ জ্বালা শুরু হয়৷ সঙ্গে বাড়ে অস্বস্তি৷ লকডাউনের মধ্যেও তাই আতঙ্কে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন অনেকেই। তবে রাস্তায় যাতে কেউ না বেরোন, সে ব্যাপারে মানুষকে সতর্ক করে ট্যুইট করে গ্রেটার বিশাখাপত্তনম পুরসভা। গ্যাস লিক শুরু হওয়ার পরেই ঘটনাস্থলে এবং তার কাছাকাছি এলাকায় পুলিশ, অ্যাম্বুল্যান্স আর দমকল পৌঁছে যায়।গুরুতর অসুস্থ হয়ে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বহু মানুষ। বৃহস্পতিবার ভোরের এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের এই শহরে।

    Published by:Pooja Basu
    First published: