‘গরিব হটাও নয়, গরিবি মুছে ফেলাই কংগ্রেসের ন্যায় প্রকল্পের লক্ষ্য’, অ্যাজেন্ডা ইন্ডিয়ার মঞ্চে বললেন রণদীপ সূর্যেওয়ালা

News18 Bangla
Updated:Apr 01, 2019 02:36 PM IST
‘গরিব হটাও নয়, গরিবি মুছে ফেলাই কংগ্রেসের ন্যায় প্রকল্পের লক্ষ্য’, অ্যাজেন্ডা ইন্ডিয়ার মঞ্চে বললেন রণদীপ সূর্যেওয়ালা
নিজস্ব চিত্র ৷
News18 Bangla
Updated:Apr 01, 2019 02:36 PM IST

#নায়দিল্লি: ‘এটা গরিবি হটাও নয়, এটা গরিবি মিটাও’ কংগ্রেসের ‘ন্যায়’ প্রকল্পের লক্ষ্য নিয়ে নেটওয়ার্ক এইটিনের অ্যাজেন্ডা ইন্ডিয়া আলোচনা চক্রে মুখ খুললেন কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সূর্যেওয়ালা ৷

১৯৭১ সালে ‘গরিবি হটাও’ স্লোগানে ঝড় তুলেই বিরাট সংখ্যা গরিষ্ঠতায় সরকার গড়েছিলেন ইন্দিরা গান্ধি ৷ পরে তাঁর ছেলে রাজীব গান্ধিও এই স্লোগান ব্যবহার করেন ৷ তবে এবার সেই লক্ষ্যে কিছুটা বদল এসেছে ৷ সম্প্রতি ভোটে জিতলে ‘ন্যায়’ প্রকল্প চালু করার কথা ঘোষণা করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি ৷ ৫ কোটি পরিবারকে বছরে ৭২ হাজার টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন তিনি ৷

এবার সেই সূত্রে ধরেই কংগ্রেসের মুখপাত্র বলেন, ‘‘৫ বছরে কোথাও গরিবির চিহ্নও থাকবে না ৷’’

ভোটের আগে শাসক ও বিরোধীদলের নেতাদের নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি করে মিডিয়া ৷ সংবাদ সংস্থাগুলির এই ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে রণদীপ বলেন, ‘‘কেন পলিটিক্সে কোনও ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয় না ? কোন নেতা কি বললেন তা নিয়েই শুধু কাদা ছোড়াছুড়ি হয় ৷ কেন চাকরি, দারিদ্র, শিল্প নিয়ে কথা হয় না ?’’

Loading...

রণদীপ সরাসরি প্রশ্ন তোলেন প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে ৷ তিনি বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী তাঁর জনসভায় বলছেন, বিরোধীদের প্রশ্ন নাকি শত্রুদের হাতে অস্ত্র তুলে দিচ্ছে ৷ যা দেশকে দুর্বল করে ফেলছে ৷ পুলওয়ামায় গোয়েন্দা ব্যর্থতা নিয়ে কি প্রশ্ন করা উচিত নয় ? মুম্বই হামলার সময় মনমোহন সিংয়ের দিকে আঙুল তুলেছিলেন এই নরেন্দ্র মোদিই ৷’’

এবারের নির্বাচনে আমেঠি এবং কেরলের ওানাড থেকে নির্বাচনে লড়বেন রাহুল গান্ধি ৷ তা নিয়ে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি গেরুয়া শিবির ৷ হেরে যাওয়ার ভয়েই যে রাহুল দুই জায়গায় দাঁড়িয়েছেন তা নিয়ে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ হয়েছে বিস্তর ৷ এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে রণদীপ বলেন, ‘‘স্মৃতি ইরানির বিরুদ্ধে আমেঠিতে হেরে যাওয়ার কোনও ভয় কংগ্রেসের নেই ৷ দক্ষিণ ভারতের মানুষজন নিজেদের কোণঠাসা বলে মনে করছেন শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর জন্য ৷ সে কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্রেস ৷ ’’

First published: 01:13:00 PM Apr 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर